ভবঘুরে কথা

চত্বারিংশ অধ্যায়

রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : চতুর্দশ পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ৬ই এপ্রিল ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ দেবেন্দ্রের বাটীতে ভক্তসঙ্গে ঠাকুর ভক্তসঙ্গে আনন্দে কথাবার্তা কহিতেছেন। চৈত্র মাস, বড় গরম! দেবেন্দ্র কুলপি বরফ তৈয়ার করিয়াছেন। ঠাকুরকে ও ভক্তেদর খাওয়াইতেছেন। ভক্তরাও কুলপি খাইয়া আনন্দ করিতেছেন। মণি আস্তে আস্তে বলছেন, ‘এন্‌কোর! এন্‌কোর!’ (অর্থাৎ আরও কুলপি দাও) ও সকলে হাসিতেছেন। কুলপি দেখিয়া ঠাকুরের ঠিক বালকের ন্যায় আনন্দ হইতেছে। শ্রীরামকৃষ্ণ – বেশ […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : ত্রয়োদশ পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ৬ই এপ্রিল দেবেন্দ্র-ভবনে ঠাকুর কীর্তনানন্দে ও সমাধিমন্দিরে এইবার খোল-করতাল লইয়া সংকীর্তন হইতেছে। কীর্তনিয়া গাহিতেছেন: কি দেখিলাম রে, কেশব ভারতীর কুটিরে, অপরূপ জ্যোতিঃ, শ্রীগৌরাঙ্গ মূরতি, দুনয়নে প্রেম বহে শতধারে। গৌর মত্তমাতঙ্গের প্রায়, প্রেমাবেশে নাচে গায়, কভু ধরাতে লুঠায়, নয়নজলে ভাসে রে, কাঁদে আর বলে হরি, স্বর্গ-মর্ত্য ভেদ করি, সিংহরবে রে, আবার দন্তে তৃণ লয়ে কৃতাঞ্জলি […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : দ্বাদশ পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ৬ই এপ্রিল দেবেন্দ্রের বাড়িতে ভক্তসঙ্গে শ্রীরামকৃষ্ণ দেবেন্দ্রের বাড়ির বৈঠকখানায় ভক্তের মজলিশ করিয়া বসিয়া আছেন। বৈঠকখানার ঘরটি এক তলায়। সন্ধ্যা হইয়া গিয়াছে। ঘরে আলো জ্বলিতেছে। ছোট নরেন, রাম, মাস্টার, গিরিশ, দেবেন্দ্র, অক্ষয়, উপেন্দ্র, ইত্যাদি অনেক ভক্তেরা কাছে বসিয়া আছেন। ঠাকুর একটি ছোকরা ভক্তকে দেখিতেছেন ও আনন্দে ভাসিতেছেন। তাহাকে উদ্দেশ করিয়া ভক্তদের বলিতেছেন, ‘তিনটে এর একেবারেই […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : একাদশ পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ৬ই এপ্রিল অন্তরঙ্গসঙ্গে বসু বলরাম-মন্দিরে বেলা তিনটা অনেকক্ষণ বাজিয়াছে। চৈত্র মাস, প্রচণ্ড রৌদ্র। শ্রীরামকৃষ্ণ দুই-একটি ভক্তসঙ্গে বলরামের বৈঠকখানায় বসিয়া আছেন। মাস্টারের সহিত কথা কহিতেছেন। আজ ৬ই এপ্রিল (সোমবার), ১৮৮৫, ২৫শে চৈত্র, ১২৯১, কৃষ্ণা সপ্তমী। ঠাকুর কলিকাতায় ভক্তমন্দিরে আসিয়াছেন। সাঙ্গোপাঙ্গদিগকে দেখিবেন ও নিমু গোস্বামীর গলিতে দেবেন্দ্রের বাড়িতে যাইবেন। [সত্যকথা ও শ্রীরামকৃষ্ণ – ছোট নরেন, বাবুরাম, […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : দশম পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ১১ই মার্চ সেবকহৃদয়ে মস্তকের উপরে তারকামণ্ডিত নৈশগগন – হৃদয়পটে অদ্ভুত শ্রীরামকৃষ্ণ ছবি, স্মৃতিমধ্যে ভক্তের মজলিস – সুখস্বপ্নের ন্যায় নয়নপথে সেই প্রেমের হাট – কলিকাতার রাজপথে স্বগৃহাভিমুখে ভক্তেরা যাইতেছেন। কেহ সরস বসন্তানিল সেবন করিতে করিতে সেই গানটি আবার গাইতে গাইতে যাচ্ছেন – “সব দুঃখ দূর করিলে দরশন দিয়ে – মোহিলে প্রাণ!” মণি ভাবতে ভাবতে যাচ্ছেন, […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : নবম পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ১১ই মার্চ সমাধিমন্দিরে – গরগরমাতোয়ারা শ্রীরামকৃষ্ণ শ্রীরামকৃষ্ণ নরেন্দ্রকে কাছে বসাইয়া একদৃষ্টে দেখিতেছেন, হঠাৎ তাঁহার সন্নিকটে আরও সরিয়া গিয়া বসিলেন। নরেন্দ্র অবতার মানেন নাই – তায় কি এসে যায়? ঠাকুরের ভালবাসা যেন আরও উথলিয়া পড়িল। গায়ে হাত দিয়া নরেন্দ্রের প্রতি কহিতেছেন, ‘মান কয়লি তো কয়লি, আমরাও তোর মানে আছি (রাই)!’ [বিচার ঈশ্বরলাভ পর্যন্ত ] (নরেন্দ্রের […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : অষ্টম পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ১১ই মার্চ ঈশ্বরদর্শন (God Vision) – অবতার প্রত্যক্ষসিদ্ধ শ্রীরামকৃষ্ণ (মাস্টারের প্রতি) – আমি তাই দেখছি সাক্ষাৎ – আর কি বিচার করব? আমি দেখছি, তিনিই এইসব হয়েছেন। তিনিই জীব ও জগৎ হয়েছেন। “তবে চৈতন্য না লাভ করলে চৈতন্যকে জানা যায় না। বিচার কতক্ষণ? যতক্ষণ না তাঁকে লাভ করা যায়; শুধু মুখে বললে হবে না, এই […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : সপ্তম পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ১১ই মার্চ পার্ষদসঙ্গে – অবতার সম্বন্ধে বিচার ভক্তেরা অনেকেই উপস্থিত; – শ্রীরামকৃষ্ণের কাছে বসিয়া। নরেন্দ্র, গিরিশ, রাম, হরিপদ, চুনি, বলরাম, মাস্টার – অনেকে আছেন। নরেন্দ্র মানেন না যে, মানুষদেহ লইয়া ঈশ্বর অবতার হন। এদিকে গিরিশের জ্বলন্ত বিশ্বাস যে, তিনি যুগে যুগে অবতার হন, আর মানবদেহ ধারণ করে মর্ত্যলোকে আসেন। ঠাকুরের ভারী ইচ্ছা যে, এ […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : ষষ্ঠ পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ১১ই মার্চ ঠাকুর ভক্তমন্দিরে – সংবাদপত্র – নিত্যগোপাল দ্বারদেশে গিরিশ; ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণকে গৃহমধ্যে লইয়া যাইতে আসিয়াছেন। ঠাকুর ভক্তসঙ্গে যেই নিকটে এলেন, অমনি গিরিশ দণ্ডের ন্যায় সম্মুখে পড়িলেন। আজ্ঞা পাইয়া উঠিলেন, ঠাকুরের পদধূলা গ্রহণ করিলেন ও সঙ্গে করিয়া দু-তলায় বৈঠকখানা ঘরে লইয়া বসাইলেন। ভক্তেরা শশব্যস্ত হয়ে আসন গ্রহণ করিলেন – সকলের ইচ্ছা, তাঁহার কাছে বসেন […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : চত্বারিংশ অধ্যায় : পঞ্চম পরিচ্ছেদ

১৮৮৫, ১১ই মার্চ রাজপথে শ্রীরামকৃষ্ণের অদ্ভুত ঈশ্বরাবেশ গিরিশের নিমন্ত্রণ! রাত্রেই যেতে হবে। এখন রাত ৯টা, ঠাকুর খাবেন বলে রাত্রের খাবার বলরামও প্রস্তুত করেছেন। পাছে বলরাম মনে কষ্ট পান, ঠাকুর গিরিশের বাড়ি যাইবার সময় তাই বুঝি বলিতেছেন, “বলরাম! তুমিও খাবার পাঠিয়ে দিও।” দুতলা হইতে নিচে নামিতে নামিতেই ভগবদ্ভাবে বিভোর! যেন মাতাল। সঙ্গে নারাণ ও মাস্টার। পশ্চাতে […]

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!