ভবঘুরে কথা

ত্রিংশ অধ্যায়

রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : ত্রিংশ অধ্যায় : তৃতীয় পরিচ্ছেদ

১৮৮৪, ১লা অক্টোবর বিজয় প্রভৃতির সঙ্গে সাকার-নিরাকার কথা – চিনির পাহাড় কেদার ও কয়েকটি ভক্ত গাত্রোত্থান করিলেন – বাড়ি যাইবেন। কেদার ঠাকুরকে প্রণাম করিলেন, আর বলিলেন, আজ্ঞা তবে আসি। শ্রীরামকৃষ্ণ – তুমি অধরকে না বলে যাবে? অভদ্রতা হয় না? কেদার – তস্মিন্‌ তুষ্টে জগৎ তুষ্টম্‌; আপনি যেকালে রইলেন, সকলেরই থাকা হল – আর কিছু অসুখ […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : ত্রিংশ অধ্যায় : দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ

১৮৮৪, ১লা অক্টোবর ভক্তসঙ্গে কীর্তনানন্দে এইবার কীর্তন আরম্ভ হইল। বৈষ্ণবচরণ অভিসার আরম্ব করিয়া রাসকীর্তন করিয়া পালা সমাপ্ত করিলেন। শ্রীশ্রীরাধাকৃষ্ণের মিলন কীর্তন যাই আরম্ভ হইল, ঠাকুর প্রেমানন্দে নৃত্য করিতে লাগিলেন। সঙ্গে সঙ্গে ভক্তেরাও তাঁহাকে বেড়িয়া নাচিতে লাগিলেন ও সংকীর্তন করিতে লাগিলেন। কীর্তনান্তে সকলে আসন গ্রহণ করিলেন। শ্রীরামকৃষ্ণ (বিজয়ের প্রতি) – ইনি বেশ গান! এই বলিয়া বৈষ্ণবচরণকে […]

বিস্তারিত পড়ুন
রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব কথা

রামকৃষ্ণ কথামৃত : ত্রিংশ অধ্যায় : প্রথম পরিচ্ছেদ

শ্রীরামকৃষ্ণের অধরের বাড়ি আগমন ও ভক্তসঙ্গে কীর্তনানন্দ ১৮৮৪, ১লা অক্টোবর কেদার, বিজয়, বাবুরাম, নারাণ, মাস্টার, বৈষ্ণবচরণ আজ (১৬ই) আশ্বিন, শুক্লা একাদশী, বুধবার, ১লা অক্টোবর, ১৮৮৪ খ্রীষ্টাব্দ। ঠাকুর দক্ষিণেশ্বর হইতে অধরের বাড়ি আসিতেছেন। সঙ্গে নারাণ,গঙ্গাধর। পথিমধ্যে হঠাৎ ঠাকুরের ভাবাবস্থা হইল। ঠাকুর ভাবে বলিতেছেন, “আমি মালা জোপব? হ্যাক থু! এ শিব যে পাতাল ফোঁড়া শিব, স্বয়ম্ভূলিঙ্গ!” অধরের […]

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!