ভবঘুরে কথা

রবীন্দ্রনাথ : পূজা সংগীত

রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আজকে মোরে বোলো

আজকে মোরে বোলো না কাজ করতে, যাব আমি দেখাশোনার নেপথ্যে আজ সরতে ক্ষণিক মরণ মরতে ॥ অচিন কূলে পাড়ি দেব, আলোকলোকে জন্ম নেব, মরণরসে অলখঝোরায় প্রাণের কলস ভরতে ॥ অনেক কালের কান্নাহাসির ছায়া ধরুক সাঁঝের রঙিন মেঘের মায়া। আজকে নাহয় একটি বেলা ছাড়ব মাটির দেহের খেলা, গানের দেশে যাব উড়ে সুরের দেহ ধরতে ॥ ……………….. […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

যাত্রাবেলায় রুদ্র রবে

যাত্রাবেলায় রুদ্র রবে বন্ধনডোর ছিন্ন হবে। ছিন্ন হবে, ছিন্ন হবে ॥ মুক্ত আমি, রুদ্ধ দ্বারে বন্দী করে কে আমারে! যাই চলে যাই অন্ধকারে ঘন্টা বাজায় সন্ধ্যা যবে ॥ ……………….. রাগ: হাম্বীর তাল: কাহারবা রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ৪ চৈত্র, ১৩৩৩ রচনাকাল (খৃষ্টাব্দ): ১৮ মার্চ, ১৯২৭ রচনাস্থান: শান্তিনিকেতন স্বরলিপিকার: দিনেন্দ্রনাথ ঠাকুর

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

পথের শেষ কোথায়

পথের শেষ কোথায়, শেষ কোথায়, কী আছে শেষে! এত কামনা, এত সাধনা কোথায় মেশে। ঢেউ ওঠে পড়ে কাঁদার, সম্মুখে ঘন আঁধার, পার আছে গো পার আছে- পার আছে কোন্‌ দেশে। আজ ভাবি মনে মনে মরীচিকা-অন্বেষণে হায় বুঝি তৃষ্ণার শেষ নেই। মনে ভয় লাগে সেই– হাল-ভাঙা পাল-ছেঁড়া ব্যথা চলেছে নিরুদ্দেশে ॥ ………………….. রাগ: পিলু তাল: কাহারবা […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

যেতে যদি হয় হবে

যেতে যদি হয় হবে- যাব, যাব, যাব তবে ॥ লেগেছিল কত ভালো এই-যে আঁধার আলো- খেলা করে সাদা কালো উদার নভে। গেল দিন ধরা-মাঝে কত ভাবে, কত কাজে, সুখে দুখে কভু লাজে, কভু গরবে ॥ প্রাণপণে কত দিন শুধেছি কঠিন ঋণ, কখনো বা উদাসীন ভুলেছি সবে। কভু ক’রে গেনু খেলা, স্রোতে ভাসাইনু ভেলা, আনমনে কত […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

মরণসাগরপারে তোমরা অমর

মরণসাগরপারে তোমরা অমর, তোমাদের স্মরি। নিখিলে রচিয়া গেলে আপনারই ঘর, তোমাদের স্মরি ॥ সংসারে জ্বেলে গেলে যে নব আলোক জয় হোক, জয় হোক, তারি জয় হোক- তোমাদের স্মরি ॥ বন্দীরে দিয়ে গেছ মুক্তির সুধা, তোমাদের স্মরি। সত্যের বরমালে সাজালে বসুধা, তোমাদের স্মরি। রেখে গেলে বাণী সে যে অভয় অশোক, জয় হোক, জয় হোক, তারি জয় […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

দুঃখ যে তোর নয়

দুঃখ যে তোর নয় রে চিরন্তন- পার আছে রে এই সাগরের বিপুল ক্রন্দন ॥ এই জীবনের ব্যথা যত এইখানে সব হবে গত, চিরপ্রাণের আলয়-মাঝে অনন্ত সান্ত্বন ॥ মরণ যে তোর নয় রে চিরন্তন- দুয়ার তাহার পেরিয়ে যাবি, ছিঁড়বে রে বন্ধন। এ বেলা তোর যদি ঝড়ে পূজার কুসুম ঝ’রে পড়ে, যাবার বেলায় ভরবে থালায় মালা ও […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আগুন আমার ভাই

ওরে, আগুন আমার ভাই, আমি তোমারি জয় গাই। তোমার শিকলভাঙা এমন রাঙা মূর্তি দেখি নাই। তুমি দু হাত তুলে আকাশ-পানে মেতেছ আজ কিসের গানে, একি আনন্দময় নৃত্য অভয় বলিহারি যাই॥ যেদিন ভবের মেয়াদ ফুরাবে ভাই, আগল যাবে সরে- সেদিন হাতের দড়ি পায়ের বেড়ি, দিবি রে ছাই করে। সেদিন আমার অঙ্গ তোমার অঙ্গে ওই নাচনে নাচবে […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আগুনে হল আগুনময়

আগুনে হল আগুনময়। জয় আগুনের জয়। মিথ্যা যত হৃদয় জুড়ে এইবেলা সব যাক না পুড়ে, মরণ-মাঝে তো জীবনের হ’ক রে পরিচয়॥ আগুন এবার চলল রে সন্ধানে কলঙ্ক তোর লুকিয়ে কোথায় প্রাণে। আড়াল তোমার যাক না ঘুচে, লজ্জা তোমার যাক রে মুছে, চিরদিনের মতো তোমার ছাই হয়ে যাক ভয়॥ ………………….. রাগ: বাউল তাল: দাদরা রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

জয় ভৈরব

জয় ভৈরব, জয় শঙ্কর! জয় জয় জয় প্রলয়ঙ্কর, শঙ্কর শঙ্কর ॥ জয় সংশয়ভেদন, জয় বন্ধনছেদন, জয় সঙ্কটসংহর শঙ্কর শঙ্কর ॥ তিমিরহৃদ্‌বিদারণ জ্বলদগ্নিনিদারুণ, মরুশ্মশানসঞ্চর শঙ্কর শঙ্কর! বজ্রঘোষবাণী, রুদ্র, শূলপাণি, মৃত্যুসিন্ধুসন্তর শঙ্কর শঙ্কর ॥ ……………………. রাগ: মিশ্র ভূপালী তাল: দাদরা রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ৩০ পৌষ, ১৩২৮ রচনাকাল (খৃষ্টাব্দ): ১৪ জানুয়ারি, ১৯২২ রচনাস্থান: শান্তিনিকেতন স্বরলিপিকার: অনাদিকুমার দস্তিদার

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

কেন রে এই দুয়ারটুকু

কেন রে এই দুয়ারটুকু পার হতে সংশয়? জয় অজানার জয়। এই দিকে তোর ভরসা যত, ওই দিকে তোর ভয়! জয় অজানার জয় ॥ জানাশোনার বাসা বেঁধে কাটল তো দিন হেসে কেঁদে, এই কোণেতেই আনাগোনা নয় কিছুতেই নয়। জয় অজানার জয় ॥ মরণকে তুই পর করেছিস ভাই, জীবন যে তোর তুচ্ছ হল তাই। দু দিন দিয়ে […]

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!