সৃষ্টিতত্ত্ব

মুক্তির প্রত্যাশা জালালী মত

সৃষ্টিতত্ত্ব

যদিও সাধারণত যে কোন পদার্থ অগ্নিতে ভস্মীভূত হইয়া যায়; যে কোন প্রজাতির মাঝেই পরিবেশকে মোকাবেলা করার জন্যে জীব তার শারীরিক পরিবর্তন ঘটাইয়া থাকে। ইহা বৈজ্ঞানিক সত্য। তেমনি তিনি ইহাও বলেছেন যে, মানুষের চেয়ে আরও অধিক উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে, জলের মধ্যে বসবাস করে এমন মানুষের মতই প্রাণী আছে।

বিস্তারিত পড়ুন
যীশু খ্রিস্ট পরিচিতি

বাইবেলে সৃষ্টিতত্ত্ব

আসমান ও জমিন সৃষ্টির বিবরণআদিতে ঈশ্বর আসমান ও দুনিয়া সৃষ্টি করলেন। দুনিয়া আকারবিহীন ও শূন্য ছিল এবং অন্ধকারে ঢাকা গভীর পানির উপরে ছিল, আর ঈশ্বরর রূহ্‌ পানির উপরে বিচরণ করছিলেন। ঈশ্বর বললেন, আলো হোক; তাতে আলো হল। তখন ঈশ্বর আলো উত্তম দেখলেন এবং ঈশ্বর অন্ধকার থেকে আলো পৃথক করলেন। ঈশ্বর আলোর নাম ‘দিন’ ও অন্ধকারের […]

বিস্তারিত পড়ুন
গ্রীক পৌরাণিকে সৃষ্টিতত্ত্ব পরিচিতি

গ্রীক পৌরাণিকে সৃষ্টিতত্ত্ব

-মূর্শেদূল কাইয়ুম মেরাজ প্রাচীন গ্রীক পুরাণ মতে, আদি অন্ধকার থেকে জন্মলাভ করে ক্যায়োস নামক দেবতা। তারপর ক্যাওস থেকে জন্ম নেন ইউরোনোমে। ক্যায়োস থেকে জন্ম নেয়ায় ইউরোনোমের ক্যায়োস কন্যা হিসেবে পরিচিত। ক্যায়োস স্বয়ং সৃষ্ট ; তাকে কেউ সৃষ্টি করে নি। তিনি নিজেই নিজেকে সৃষ্টি করেছেন। আর ইউরোনোমের সৃষ্টি হয়েছে সেই স্বসৃষ্ট ক্যায়োস থেকে। কিন্তু ইউরিনোমের ছিল […]

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!