রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর

আমি হৃদয়েতে পথ কেটেছি

আমি হৃদয়েতে পথ কেটেছি,
সেথায় চরণ পড়ে,
তোমার সেথায় চরণ পড়ে।
তাই তো আমার সকল পরান
কাঁপছে ব্যথার ভরে গো,
কাঁপছে থরোথরে ॥

ব্যথাপথের পথিক তুমি,
চরণ চলে ব্যথা চুমি-
কাঁদন দিয়ে সাধন
আমার চিরদিনের তরে গো,
চিরজীবন ধ’রে ॥

নয়নজলের বন্যা দেখে ভয় করি নে আর,
আমি ভয় করি নে আর।
মরণ-টানে টেনে আমায় করিয়ে দেবে পার,
আমি তরব পারাবার।

ঝড়ের হাওয়া আকুল গানে
বইছে আজি তোমার পানে-
ডুবিয়ে তরী ঝাঁপিয়ে পড়ি
ঠেকব চরণ-‘পরে,
আমি বাঁচব চরণ ধরে ॥

……………………..
রাগ: পিলু
তাল: দাদরা
রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ৬ ভাদ্র, ১৩২১
রচনাকাল (খৃষ্টাব্দ): ২৩ অগাস্ট, ১৯১৪
রচনাস্থান: কলকাতা
স্বরলিপিকার: সুধীরচন্দ্র কর

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!