মহাত্মা ফকির লালন সাঁইজি

একবার জগন্নাথে দেখ না

একবার জগন্নাথে দেখ না রে যেয়ে
জাতকূল কেমন রাখ বাঁচায়ে
চন্ডালে রাঁধিলে অন্ন ব্রাহ্মণে তাই খায় চেয়ে।।

জোলা ছিল কুবীর দাস
তার তুড়ানি বার মাস
উঠিছে উথলিয়ে;
সেই তুড়ানি খায় যে ধনি
সেই আসে দর্শন পেয়ে।।

ধন্য প্রভু জগন্নাথ
চায় না রে সে জাত অজাত
ভক্তের অধীন সে;
জাতবিচারি দুরাচারি
যায় তারা সব দূর হয়ে।।

জাত না গেলে পায় না হরি
কী ছার জেতের গৌরব করি
ছুঁসনে বলিয়ে;
লালন কয় জাত হাতে পেলে
পোড়াতাম আগুন দিয়ে।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!