রাধারমণ দত্ত

ডাকরে মন রসনা

হরি হরি বলে ডাকরে মন রসনা
হরি নাম বিনা তোমার উপায় গতি দেখি না। ধু–
মায়ের উদরে যখন উর্ধ্বপদে ছিলে তখন
বলে এলে করবে সাধনা সেকথা কি মনে পড়ে না।
রোগে শোকে ধরে যখন নাম জপোত অনুক্ষণ
কাজ সারিলে বেহুস মন নামটি মুখে আসে না।
যখন ভুগো অনাহারে তখন ডাকো পরানভরে
আহার করে ঘুমের ঘোরে তার কথা ভাবো না।
ভাবিয়া রাধারমণ বলে ভুগবে শেষে যন্ত্রণা–
ভোগে ভোগে কাল কটাইলা লয়ে শঠের মন্ত্রণা।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!