বিজয় সরকার

দীন বন্ধুরে আমি ভেবেছিলাম

দীন বন্ধুরে আমি ভেবেছিলাম সমান যাবে দিন।
এখন জীবন শেষে এসে দেখি
আমার সব ভাবনা ভিত্তিহীন।।

সুখের সংসার গড়লাম যাদের আপন ভাবিয়া
কোন অজানা দেশে তারা পাই না খুঁজিয়া;
এখন ভাবি বসে চোখ বুজিয়া
সম্মুখে দেখে দুর্দিন।।

আগে তো দেখি নাই আমি ভাবিয়া বিশেষ
হাসিকান্না আলোছায়া ভাঙ্গা গড়ার দেশ;
এ যে অন্ধকূপের উপনিবেশ
ছাড়পত্র পাওয়া কঠিন।।

চলার সাথি নাহি পথে কে দিবে সন্ধান
একা আসা একা যাওয়া বিধাতার বিধান;
আমি করতে পারি না অনুমান
এ পথ যে চির অচিন।।

কালস্রোতে তৃণের মতো ভাসি ধরাধাম
ব্যথার আঘাত বুকে লয়ে চলি অবিরাম
কবে হবে আমার চিরবিশ্রাম
হয়ে তোমার সম্মুখিন।।

জীর্ণকর্ম সূত্র করে বসে নিরালা
পাগল বিজয় কয়, পুষ্পিত বাক্যে গাঁথিলাম মালা;
আমি সাজলাম দেউলে দোকানয়ালা
মহাজনের হয়ে ঋণ।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!