সুফি হাসান মিয়া চিশতী নিজামী

ধন্য ধন্য মেরা, ছিল ছিলা।
এলো দিল্লীতে, নিজাম উদ্দীন আউলিয়া।।

ভারতের এক সওদাগর, একিনে মানত করে
নিজের হাতে চাঁদর দিবে, বড় পীরের মাজারে
রাস্তায় থামাইয়া দিলো কাফেলা।।

সওদাগর স্বপনে দেখে, আসিয়া এক বুজুরগান
রাস্তায় অনেক বিপদ আছে, বলিতেছে তার সন্ধান
নিজামীর মাজারে চাদর, দাও দিয়া।।

সওদাগর কয় মানত করছি, বড় পীরের মাজারে
কেমন করে দিবো চাদর, দেহেলীরো মাজারে
বুজুরগানে ধমক দিলো, রাগ হইয়া।।

বাগদাদে আমি হইলাম, মাহাবুবে সোবহানী
দিল্লীতে আমি হইলাম, মাহাবুবে এলাহী
সওদাগর ভয়ে উঠলো, কাঁপিয়া।।

রাত্র যখন প্রভাত হলো, ফজরেরো আজান দেয়
চাঁদর লইয়া সওদাগরে, নিজামীর মাজারে যায়
নিজের হাতে দিলো, চড়াইয়া।।

হাসানে কয় লাল মিয়া ভাই, বুঝলাম না কিছুই আমি
বালুর ঘাটে কে আসিলো, ইশ্রাইল শাহ নিজামী
ইশারায় নিও সবে, বুঝিয়া।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!