নবী হজরত মোহাম্মদ নবীজী মুস্তফা

-নূর মোহাম্মদ মিলু

হযরত ওমর বিন মালেক (র) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবীজির ইন্তেকালের পর একবার মদীনা শরীফে দীর্ঘদিন অনাবৃষ্টির কারণে অসহনীয় গরম আর দুর্ভিক্ষ দেখা দেয়। তাই মদীনাবাসীরা একদিন মুমিনদের মা এবং নবীজির স্ত্রী হযরত মা আয়েশা সিদ্দীকা (র) এর কাছে গিয়ে নিজেদের সমস্যার কথা উল্লেখ করে বৃষ্টির জন্য দোয়া কামনা করেন। তখন মা আয়েশা (র) বলেন, হে মদীনাবাসী তোমরা নবীজর রওজা মোবারকের উপর যে খেজুর গাছের ডাল আছে তা সরিয়ে দাও এবং অপেক্ষা কর। মদীনাবাসীরা তখন মা আয়েশা সিদ্দীকার পরামর্শ মোতাবেক কাজ করলেন।

নবীজির রওজা মোবারকের উপর থাকে খেজুর গাছের ডালপালা সরানোর সাথে সাথে হঠাৎ আকাশ ধীরে ধীরে কালো মেঘে ডাকা শুরু করলো, অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই আকাশ থেকে এমনভাবে ভারী বর্ষণ হতে শুরু হল যে, লোকজনের পথ চলা কষ্টদায়ক হয়ে পরল।

দীর্ঘ এক সপ্তাহ অনবরত এই বৃষ্টি বর্ষণ চলতে লাগলো যা এক মুর্হূতের জন্যও বন্ধ হয়নি। যা ফসল ফলাদির জন্য পর্যাপ্ত ছিল।

এক সপ্তাহ পর, মদীনাবাসীরা আবার মা আয়েশা সিদ্দীকার কাছে গিয়ে বৃষ্টি বন্ধের জন্য দোয়া চাইল। তখন হযরত মা আয়েশা বললেন, নবীজির রওজা মোবারকের উপর খেজুর গাছে ডাল পূর্বের মত দিয়ে দাও, বৃষ্টি বন্ধ হয়ে যাবে।

মদীনাবাসীরা তাই করলো, সাথে সাথে বৃষ্টি বন্ধ হয়ে গেলো।

……………………………………..
( সুত্র: ইবনে মাজা: ৬০২; দারেমী: ৯২৭)
এখনো পর্যন্ত হাদীসের এই ধারাবাহিকথাই যখনি কঠিন অনাবৃষ্টি দেখা দেয়, তখন নবীজির রওজা মোবারকের উপর এই জানালা খুলে দিলে আল্লাহর হুকমে সাথে সাথে বৃষ্টি হতে থাকে।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!