মতুয়া সংগীত

প্রেমিক গুরু ধর

(তাল-গড়খেম্টা)
প্রেমিক গুরু ধর চিনে, প্রেমিক গুরু ধর চিনে।
অপ্রেমিকের সঙ্গ নিলে সাধন হয় না কোন দিনে।।

১। শাস্ত্র, শ্লোক বক্তা হলে, বক বক করে সদা চলে
তারে গুরু করতে হলে, অধর ধরা শক্তি মিলবে কেনে।
তার বক বকি সার, ভিতর উসার, সারবস্তু না চিনে
ও তার ঠিক নাইরে দিল, নষ্ট হয় বিল, কানা বকের আগমনে।।

২। অধর ধরেছে যেই জন, বক বকি নাই তার কখন,
ছয় রিপু করিয়ে দমন, প্রেমে সে মগন রাত্রি দিনে।
পাগল ধারা মাতোয়ারা, ধারা বয় নয়নে,
তিনি প্রেম কান্থা করিয়ে ধারণ, নাম জপে সে মনে প্রাণে।।

৩। প্রেমিকের এই নশানা, সৎমতি, সংকল্পনা,
তরায় দিয়ে উপাসনা, যাহাতে উদ্ধার হয় জীবগণে।
অধর চাঁদকে যে ধরেছে, ধরগে সেই জনে,
তবে অধর মানুষ পাবি ধরা, ঐ মানুষের দয়া গুণে।।

৪। আদিত্য বলে দুঃখে, ভুলিসনে বক বকির বকে,
সদগুরু ধর সুখে, উদ্ধার হবি তার পরশনে।
ওরে দীনা মুর্খ পিতৃধন সূক্ষ্ম পতন দিনে দিনে,
প্রেমিক হরি গোসাইর স্বভাব নিয়ে,
হুসের ঘরে থাক চেতনে।।

………………………….
রাগিনী-উল্টাকেশী

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!