ফকির লালন

ফকির লালনের বাণী : সাধকদেশ :: আট

ফকির লালনের বাণী : সাধকদেশ

৩৫১.
সময় বয়ে গেলো আল্লার নাম বল
মালেকুল মউত এসে বলিবে চল।

৩৫২.
যার বিষয় সে লয়ে যাবে
সেকি রাখে কারো ভয়।

৩৫৩.
আল্লার নামের নাই যে তুলনা
সাদেক দেলে সাধলে বিপদ থাকে না।

৩৫৪.
সে খুলবে তালা, জ্বলবে আলো
দেখতে পাবে জ্যেতির্ময়।

৩৫৫.
তাই ভেবে ফকির লালন কয়
তাঁর নামের তুলনা দিতে নয়।

৩৫৬.
সে আল্লা হয়ে আল্লা বলে
জীবে কি তাঁর মর্ম পায়।

৩৫৭.
কে পারে মকরউল্লার মকর বুঝিতে।
আহাদে সে আহামদ নাম হয় জগতে।

৩৫৮.
আহামদ নামে খোদায়
মিম হরফ নফি সে কয়।

৩৫৯.
মিম উঠায়ে দেখ সবাই
কী হয় তাতে।

৩৬০.
আকারে হয়ে জুদা
খোদে সে বলে খোদা।

৩৬১.
দিব্যজ্ঞান নইলে কে তা
পায় জানিতে।

৩৬২.
এখলাস সুরায় তাঁর
ইশারায় আছে বিচার।

৩৬৩.
মকরউল্লার মকর কে বুঝিতে পারে।

৩৬৪.
আপনি আল্লা আপনি অলি
আপনি আগম নাম ধরে।

৩৬৫.
পরওয়ারদিগার মালিক সবার
ভবের ঘাটে পারের কাণ্ডার।

৩৬৬.
তাইতে রাম রহিম নাম তাঁর
প্রকাশ সংসারে।

৩৬৭.
কোরানে বলেছে খাঁটি
ওলিয়েম মোর্শেদ নামটি।

৩৬৮.
আহাদ আহামদ সেটি
মেলে কিঞ্চিৎ নজিরে।

৩৬৯.
আলিফ যখন লামে লুকায়
আদমরূপ তমনি দেখায়।

৩৭০.
জমির জরিপ একদিনেতে সারা।
আগার পাগার আছে তেগার
ঠিকেতে ঠিক করা।

৩৭১.
এই দেহে আঠার কলি
সে কথা এখন বলি।

৩৭২.
পণ্ডিতে খুঁজে পায় না গলি
বুঝবে সাধক যারা।

৩৭৩.
একেতে তিন ভাগ করিয়ে
বার গুন আকার দিয়ে।

৩৭৪.
অতীত পতিত রয় বাহিরে
ভিতরে আছে বালুচরা।

৩৭৫.
দুই পয়ারে এক চরে পাখি
জগতে নাই তাকিয়ে দেখি।

৩৭৬.
একেবার তার ফাঁকফুঁকি
সে কি বুঝবি তোরা।

৩৭৭.
চিকন ধারে নলটি ধরে
রাখ না জমিন জরিপ করে,
মস্তক ছেদন করা দেখে
লালন দিশেহারা।

৩৭৮.
দিন থাকতে মুর্শিদরতন চিনে নে না
এমন সাধের জনম,
বয়ে গেলে আর হবে না।

৩৭৯.
মুর্শিদ আমার বিষয়াদি
মুর্শিদ আমার দয়াল নিধি।

৩৮০.
পারে যেতে ভব নদী
ভরসা ওই চরণখানা।

৩৮১.
কোরানে সাফ শুনিতে পাই
আলিয়েম মোর্শেদ সাঁই।

৩৮২.
ভেবে বুঝে দেখ মনরায়
মুর্শিদ সে কেমন জনা।

৩৮৩.
মুর্শিদ বস্তু চিনলে পরে
চেনা যায় মন অচেনারে।

৩৮৪.
মুর্শিদ জানায় যারে
মর্ম সেই জানতে পায়।

৩৮৫.
জেনে শুনে রাখে মনে
সেকি কারো কয়।

৩৮৬.
নিরাকার রয় অচিন দেশে
আকার ছাড়া চলে না সে।

৩৮৭.
নিরন্তর সাঁই, অন্ত যার নাই
যে যা ভাবে তাই হয়।

৩৮৮.
মুন্সী লোকের মুন্সীগিরি
আমি কি তাই জানতে পারি।

৩৮৯.
আকার নাই যার,বর্জোখ কার
বলে সর্বদায়।

৩৯০.
নূরেতে কুল আলম পয়দা
আবার কয় পানির কথা,
নূর কি পানি বস্তুু জানি
লালন ভাবে তাই।

৩৯১.
আপনার আপনি চেনা যদি যায়।
তবে তারে চিনতে পারি সেই পরিচয়।

৩৯২.
উপর-আলা সদর-বারি
আত্মারূপে অবতারি।

৩৯৩.
মনের ঘোরে চিনতে নারি
কিসে কি হয়।

৩৯৪.
যে অঙ্গ সেই অংশকলা
কায় বিশেষ ভিন্ন বলা।

৩৯৫.
যার ঘুঁচেছে মনের ঘুলা
সে কি তা কয়।

৩৯৬.
সেই আমি কি আমিই আমি
তাই জানিলে যায় দুর্নামি।

৩৯৭.
কোন কলে নানাবিধ আওয়াজ উদয়।
কোন কলে নানান ছবি নাচ করে সদাই।

৩৯৮.
কলমা পড়ি কল চিনিনে
যে কলে ঐ কলমা চলে।

৩৯৯.
উপর উপর বেড়াও ঘুরে
গভীরে ডুবিল না হৃদয়।

৪০০.
কলের পাখি কলের চুয়া
কলের মোহর গিরে দেওয়া।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!