মতুয়া সংগীত

বন্যার তরঙ্গে মরি

(তাল-একতাফা)
বন্যার তরঙ্গে মরি আতঙ্কে,
প্রণ মানেনা ভেবে মরি আমি উপায় কি করি,
মরি প্রলয় অনলে-বিরহ বিষানলে,
তরঙ্গ তাই হল ভারি।।

১। আমার প্রেম মহিষী হল আকুল, ভাব রসিকে হল বেকুল,
নয়ন জলে ভাসে দুকুল, তাতে ধরা ভেসে যায়।
এবার উঠে গেল তুফান, ক্ষণে ক্ষণে অজ্ঞান,
অসুস্থ সে আছে পড়ি।।

২। তুফান স্বর্গ মর্ত্ত পাতাল ভূতল,
ছেদন করে সে সপ্ত তাল, ঢেউ লাগিয়ে মুক্তি তরু,
আমার সকল ভেসে যায়।
আমি উপায় কিবা করি, ডুবে বুঝি মরি,
আমার দেহ বাঁচাই কেমন করি।।

৩। এবার প্রেম বন্যা হইল ভারি, ধৈর্য্য হতে নাহি পারি,
কি করিতে কি না করি, প্রাণ মোর হতাশ হয়ে যায়।
আরও ফল বৃক্ষ যা ছিল বন্যায় ভেঙ্গে নিল,
ছুটে গেল মায়ার ভেরী।।

৪। স্বামী হরিচরণ, জেনে কারণ, প্রেম অনুরাগ করে ধারণ,
হুঙ্কারে কাম করে বারণ, সদা প্রেমানন্দে রয়।
ভেবে আদিত্য কয়, প্রেম বন্যায় সব ডুবে যায়,
দীন ডুবে থাক গে মরি।।

……………………………………….
বিচ্ছেদ
রাগিনী-শনিরা

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!