বাবা মোখলেছ শাহ্

বাবা মোখলেছ শাহ্’র দ্বাদশ বেছাল দিবসে পবিত্র ওরশ

হযরত পীরে কামেল দয়াল বাবা মোখলেছ শাহ্ (র) এঁর দ্বাদশ বেছাল দিবস উপলক্ষে বাৎসরিক পবিত্র ওরশ মোবারক

সুধি,
আসছে আগামী ২৫, ২৬, ২৭ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ মোতাবেক ৯, ১০, ১১ মার্চ ২০২০ খ্রিস্টাব্দ রোজ সোমবার, মঙ্গলবার ও বুধবার হযরত পীরে কামেল দয়াল বাবা মোখলেছ শাহ্ (র) এর ১২তম বেছাল দিবস উপলক্ষে বাৎসরিক পবিত্র ওরশ মোবারক উদযাপিত হবে।

প্রতিবারের ন্যায় এবারও পবিত্র ওরশ মোবারক উপলক্ষে দেশ ও দেশের বাহিরে থেকে আসা অগণিত ভক্ত আশেকানের উপস্থিতিতে দুবাচাইল-বাজেবিশাড়া গ্রাম অসাম্প্রদায়িক মিলনমেলায় পূর্ণ হয়ে ওঠবে। উক্ত ওরশ মোবারকে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলে আমন্ত্রিত।

নিবেদক
প্রভাষক-
পীরজাদা মোস্তাফিজুর রহমান সানু শাহ্ ও
ফাহিম শাহ্
দুবাচাইল পাক দরবার শরীফ
নবীনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

সময়:
সোমবার, মঙ্গলবার ও বুধবার
২৫, ২৬, ২৭ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
৯, ১০, ১১ মার্চ ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

স্থান:
দুবাচাইল পাক দরবার শরীফ
নবীনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

: অনুষ্ঠানসূচি :

প্রথম রজনী : সোমবার
২৫ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ/৯ মার্চ ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
দুপুর ১২:০১ মিনিটে – মাজার গোসল ও গিলাপ চড়ানো।
এরপর থেকে আস্তানা-আস্তানায় ভক্তিমূলক গান।
বাদ মাগরিব – মিলাদ ও দোয়া মাহফিল।
রাত ১০ টার পর – বাউল গান ‘গুরু-শিষ্য পালা’।
শিল্পী: লতিফ সরকার বনাম মুক্তা সরকার।

দ্বিতীয় রজনী : মঙ্গলবার
২৬ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ/১০ মার্চ ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
প্রতিদিনের ন্যায় আস্তানা-আস্তানায় ভক্তিমূলক গান।
বাদ মাগরিব- মিলাদ ও দোয়া মাহফিল।

রাত ১০টার পর – বাউল গান ‘মজ্জুব-সালেকীন পালা’।
শিল্পী: ইমন সরকার বনাম শিরিন দেওয়ান।
ফজরের পর তবারক বিতরণ।

তৃতীয় রজনী : বুধবার
২৭ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ/১১ মার্চ ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
প্রতিদিনের ন্যায় আস্তানা-আস্তানায় গান।
বাদ মাগরিব- মিলাদ ও দোয়া মাহফিল।
রাত ১০টার পর- বাউল গান ‘নবুওয়ত ও বেলায়েত পালা’।
শিল্পী: ছোট আবুল সরকার বনাম কাজল দেওয়ান।

ব্যবস্থাপনায়:
আচরি ভ্রাতৃ সংঘ

যোগাযোগ:
মোঃ শাহ্-নূর আলম
০১৭৬০৮৯৯৩৭১

যাতায়াত:

-ঢাকা থেকে-

বাস সার্ভিস:
ঢাকার গুলিস্তান, সায়দাবাদ থেকে বিআরটিসি/অভিলাষ বাস বা অন্যান্য যে বাস আড়াইহাজার যায় তাতে করে আড়াইহাজার বিশনন্দী ফেরীঘাট যেতে হবে। ফেরী পাড় হয়ে সিএনজিতে করে সরাসরি দুবাচাইল পাক দরবার শরীফ।

লঞ্চ সার্ভিস:
সদরঘাট থেকে এমভি মিশু (সদরঘাট টু রামচন্দ্রপুর বাজার)-তে করে রামচন্দ্রপুর বাজার নামতে হবে। সেখান থেকে সিএনজিতে করে সরাসরি দুবাচাইল পাক দরবার শরীফ। এমভি মিশু রাত ১১টায় সদরঘাট থেকে ছেড়ে যায়।

এছাড়া সিলেট, আশুগঞ্জ, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, কুমিল্লা থেকে বাসে করে কোম্পানীগঞ্জ। কোম্পানীগঞ্জ থেকে সিএনজিতে করে সরাসরি দুবাচাইল পাক দরবার শরীফ।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!