সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : আমন্ত্রণ

আমন্ত্রণ রোদন কি হেতু সখা? সর্বশক্তি তোমারি তো অন্তরে নিহিত! জ্ঞান-বীর্য-প্রদ সেই নিজ দিব্য স্বরূপেরে কর উদ্বোধিত- ত্রিলোকে যা কিছু…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : আমারই আত্মাকে

আমারই আত্মাকে ধরে থাক আরও কিছুকাল, অটল হৃদয়, ছিন্ন করো নাকো এই আজন্ম বন্ধন, যদিও অস্পষ্ট ক্ষীণ এই বর্তমান-ভবিষ্যৎ ঘনতমোময়!…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : জীবন্মুক্তের গীতি

জীবন্মুক্তের গীতি বিস্তারে বিশাল ফণা দলিতা ফণিনী; প্রজ্বলিত হুতাশন যথা সঞ্চালনে, শূন্য ব্যোম-পথে যথা উঠে প্রতিধ্বনি মর্মাহত কেশরীর কুপিত গর্জনে।…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : শান্তি

শান্তি ওই দেখ-আসে মহাবেগে মহাশক্তি, যাহা শক্তি নয়– অন্ধকারে আলোকস্বরূপ তীব্রালোকে ছায়ার আভাস আনন্দ যা হয়নি প্রকাশ, অবেদিত দুঃখ সুগভীর,…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : মুক্তি

মুক্তি ওই দেখ মিলাইয়া যায় কালো মেঘপুঞ্জ যত রাত্রির আঁধারে আরও ঘন করি, ধরণীর ’পরে তাহারা থমকি ছিল, অবসন্ন বিষাদ…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : আশীর্বাদ

আশীর্বাদ বীরের সঙ্কল্প আর মায়ের হৃদয়, দক্ষিণের সমীরণ-মৃদুমধুময়, আর্যবেদী ’পরে দীপ্ত মুক্ত হোমানলে যে পুণ্য সৌন্দর্য আর যে শৌর্য বিরাজে-…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : শান্তিতে সে লভুক বিশ্রাম

শান্তিতে সে লভুক বিশ্রাম চল আত্মা, শীঘ্রগতি, তারকা-খচিত তব পথে, ধাও হে আনন্দময়, যেথা নাহি বাঁধে মনোরথে; দেশকাল দৃষ্টিপথ যেথা…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : আলোক

আলোক সম্মুখে পশ্চাতে চেয়ে দেখি- সব ঠিক, সকলি সার্থক। বেদনার গভীর আমার জ্বলে এক চিন্ময় আলোক।

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : জাগ্রত দেবতা

জাগ্রত দেবতা সেই এক বিরাজিত অন্তরে বাহিরে, সব হাতে তাঁরি কাজ, সব পায়ে তাঁরি চলা, তাঁরি দেহ তোমরা সবাই, কর…

সপ্তম খণ্ড : কবিতা (অনুবাদ) : পানপাত্র

পানপাত্র এই তব পানপাত্র, তোমারি উদ্দেশে সৃষ্টির উন্মেষ হতে এ পাত্র-রচনা। জানি জানি এ পানীয় কালকূট ঘোর, তোমারি মন্থিত সুরা-দূর…
error: Content is protected !!