ভবঘুরেকথা

মন আমার গেল জানা।
কারো রবে না এ ধন জীবন যৌবন
তবে কেন মন এত বাসনা,
একবার সবুরের দেশে বয় দেখি দম কষে
উঠিস নারে ভেসে পেয়ে যন্ত্রণা।।

যে করে কালার চরণের আশা
জানো নারে মন তার কী দুর্দশা,
ভক্তবলী রাজা ছিল, সর্বস্ব ধন নিল
বামুনরূপে প্রভু করে ছলনা।।

প্রহ্লাদ চরিত্র দেখ চিত্রধামে
কত কষ্ট হল সেই কৃষ্ণনামে,
তারে অগ্নিতে জ্বালালো, জলে ডুবাইল
তবু না ছাড়িল শ্রীরূপ সাধনা।।

কর্ণরাজা ভবে বড় দাতা ছিল
অতিথিরূপে তার সবংশ নাশিল,
তবু কর্ণ অনুরাগী, না হইল দুখী
অতিথির মন করল সান্ত্বনা।।

রামের ভক্ত লক্ষণ ছিল সর্বকালে
শক্তিশেল হানিলো তার বক্ষস্থলে,
তবু রামচন্দ্রের প্রতি, লক্ষণ না ভুলিল ভক্তি
লালন বলে কর এ বিবেচনা।।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!