মাওলা সদর উদ্দিন আহ্‌মদ চিশতী

সদর উদ্দিন চিশতীর বাণী: এক

১.
আল্লাহর গুণাবলীর বহিঃপ্রকাশ এই সৃষ্টি।

২.
মানুষের চিন্তা ও কর্মগুলিকেই তাহার ধর্ম বলে।

৩.
কামিয়াব হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত প্রত্যেক ব্যক্তির নফস নিজেই তাহার জন্য বড় প্রতারক।

৪.
প্রাণের মায়া ত্যাগ করিয়া পরিপূর্ণ আত্মসমর্পণের দ্বারাই কেবল ঈমান অর্জ্জন করা যায়।

৫.
সামনে সুন্দর সময় আসছে। মানুষ সত্য খুঁজবে, সত্য গ্রহণ করবে। পৃথিবীতে শান্তি আসবে।

৬.
অন্তরে ‘হাক্কুল একীন’ অর্থাৎ দৃঢ় আত্মপ্রত্যয় বা দৃঢ় বিশ্বাস না হওয়া পর্যন্ত মনের চঞ্চলতার অবসান ঘটে না।

৭.
যে ব্যক্তি পাগলই হয় নি, সেই তো আসলে পাগল। আল্লাহর প্রেমে পাগলই সুস্থ। অথচ যে পাগল হয় নাই, সেই আসলে অসুস্থ।

৮.
যে ঘরেই মাওলা আলীর জন্ম হয় তাহা সার্বজনীনভাবে ও সর্বযুগে তোয়াফযোগ্য। আলী পর্যায়ের একজন ব্যক্তির তোয়াফ মানে মহানবীর তোয়াফ।

৯.
জ্ঞানের প্রবাহ লাভ করাই মানসিক সাফল্য। যে স্বর্গীয় জ্ঞান মানুষ সাধনা দ্বারা অর্জন করে ভাষায় তাহার বহি:প্রকাশকে জান্নাতের নহর বা ফোয়ারা বলে।

১০.
মুসলমান শব্দের অর্থ আত্মসমর্পণকারী। তিনি যে কোন ধর্ম বর্ণ গোত্রের লোক হতে পারেন। মুসলমান হওয়ার জন্য কাউকে ধর্ম ত্যাগ করে নাম পাল্টাতে হয় না।

১১.
প্রেম অখণ্ড এবং অমর একটি বিষয়। ইহা মোহের মত মৃত্যু দ্বারা খণ্ডিত হয় না। সুতরাং যাহারা প্রেমের অধিকারী তাহারা মৃত্যুকে জয় করিয়াছেন অর্থাৎ মরার আগে মরিয়া গিয়াছেন।

১২.
যখন তুমি কাউকে কোন কাজের দায়িত্ব দিবে তখন তাকে পরিষ্কার বুঝিয়ে বলে দিবে তার থেকে তুমি কি সুফল আশা কর? কিন্তু তিনি উক্ত কাজটা কিভাবে সুসম্পন্ন করছে সেটা তুমি দেখতে যেওনা না।

১৩.
কোরান শুধু পড়ার পুস্তক নয়। ইহাতে ব্যক্ত জীবন দর্শনের প্রতি দৃষ্টি রাখিয়া জীবন গঠন করাই ইহার সার্থকতা। এইদিক হইতে বিচার করিলে দেখা যায় ১৪শত বৎসরের মধ্যে পৃথিবীর কোন দেশই কোরানের প্রতি সুবিচার করে নাই। কেন করে নাই?

১৪.
সকল মহাপুরুষের শিক্ষার মূলমন্ত্র হইল মনের মধ্যে ‘লা’ অবস্থা সৃষ্টি করা, কিন্তু মানুষ তাহার দৈহিক বা জৈবিক চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়া বিষয়মোহে আপ্লুত হইয়া থাকিতে ভালবাসে। মন হইতে দুনিয়া মুছিয়া না যাওয়া পর্যন্ত রব কাহারও মাঝে জাগ্রত হইয়া উঠে না।

সদর উদ্দিন চিশতীর বাণী: দুই>>

………………………………..
আরও পড়ুন-
সদর উদ্দিন চিশতীর বাণী: এক
সদর উদ্দিন চিশতীর বাণী: দুই

……………………………….
ভাববাদ-আধ্যাত্মবাদ-সাধুগুরু নিয়ে লিখুন ভবঘুরেকথা.কম-এ
লেখা পাঠিয়ে দিন- voboghurekotha@gmail.com
……………………………….

…………………….
আরও পড়ুন-
মহানবীর বাণী: এক
মহানবীর বাণী: দুই
মহানবীর বাণী: তিন
মহানবীর বাণী: চার
ইমাম গাজ্জালীর বাণী: এক
ইমাম গাজ্জালীর বাণী: দুই
গৌতম বুদ্ধের বাণী: এক
গৌতম বুদ্ধের বাণী: দুই
গৌতম বুদ্ধের বাণী: তিন
গৌতম বুদ্ধের বাণী: চার

গুরু নানকের বাণী: এক
গুরু নানকের বাণী: দুই
চৈতন্য মহাপ্রভুর বাণী
কনফুসিয়াসের বাণী: এক
কনফুসিয়াসের বাণী: দুই
জগদ্বন্ধু সুন্দরের বাণী: এক
জগদ্বন্ধু সুন্দরের বাণী: দুই
স্বামী পরমানন্দের বাণী: এক
স্বামী পরমানন্দের বাণী: দুই
স্বামী পরমানন্দের বাণী: তিন
স্বামী পরমানন্দের বাণী: চার
স্বামী পরমানন্দের বাণী: পাঁচ
স্বামী পরমানন্দের বাণী: ছয়
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: এক
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: দুই
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: তিন
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: চার
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: পাঁচ
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: ছয়
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: সাত
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: আট
সীতারাম ওঙ্কারনাথের বাণী: নয়
শ্রী শ্রী কৈবল্যধাম সম্পর্কে
শ্রী শ্রী রামঠাকুরের বাণী
শ্রী শ্রী রামঠাকুরের বেদবাণী : ১ম খন্ড
শ্রী শ্রী রামঠাকুরের বেদবাণী : ২য় খন্ড
শ্রী শ্রী রামঠাকুরের বেদবাণী : ৩য় খন্ড
সদগুরু জাগ্গি‌ বাসুদেবের বাণী: এক
সদগুরু জাগ্গি‌ বাসুদেবের বাণী: দুই
সদগুরু জাগ্গি‌ বাসুদেবের বাণী: তিন
সদগুরু জাগ্গি‌ বাসুদেবের বাণী: চার
অনুকুল ঠাকুরের বাণী: এক
অনুকুল ঠাকুরের বাণী: দুই
অনুকুল ঠাকুরের বাণী: তিন
অনুকুল ঠাকুরের বাণী: চার

…………………………..
আরো পড়ুন:
মাই ডিভাইন জার্নি : এক :: মানুষ গুরু নিষ্ঠা যার
মাই ডিভাইন জার্নি : দুই :: কবে সাধুর চরণ ধুলি মোর লাগবে গায়
মাই ডিভাইন জার্নি : তিন :: কোন মানুষের বাস কোন দলে
মাই ডিভাইন জার্নি : চার :: গুরু পদে মতি আমার কৈ হল
মাই ডিভাইন জার্নি : পাঁচ :: পাপীর ভাগ্যে এমন দিন কি আর হবে রে
মাই ডিভাইন জার্নি : ছয় :: সোনার মানুষ ভাসছে রসে
মাই ডিভাইন জার্নি : সাত :: ডুবে দেখ দেখি মন কীরূপ লীলাময়
মাই ডিভাইন জার্নি : আট :: আর কি হবে এমন জনম বসবো সাধুর মেলে
মাই ডিভাইন জার্নি : নয় :: কেন ডুবলি না মন গুরুর চরণে
মাই ডিভাইন জার্নি : দশ :: যে নাম স্মরণে যাবে জঠর যন্ত্রণা
মাই ডিভাইন জার্নি : এগারো :: ত্বরাও গুরু নিজগুণে
মাই ডিভাইন জার্নি : বারো :: তোমার দয়া বিনে চরণ সাধবো কি মতে
মাই ডিভাইন জার্নি : তেরো :: দাসের যোগ্য নই চরণে
মাই ডিভাইন জার্নি :চৌদ্দ :: ভক্তি দাও হে যেন চরণ পাই

মাই ডিভাইন জার্নি: পনের:: ভক্তের দ্বারে বাঁধা আছেন সাঁই
মাই ডিভাইন জার্নি : ষোল:: ধর মানুষ রূপ নেহারে
মাই ডিভাইন জার্নি : সতের:: গুরুপদে ভক্তিহীন হয়ে
মাই ডিভাইন জার্নি : আঠার:: রাখিলেন সাঁই কূপজল করে
মাই ডিভাইন জার্নি :উনিশ :: আমি দাসের দাস যোগ্য নই
মাই ডিভাইন জার্নি : বিশ :: কোন মানুষের করি ভজনা
মাই ডিভাইন জার্নি : একুশ :: এসব দেখি কানার হাটবাজার

প্রাসঙ্গিক লেখা

2 Comments

  • Sazzad Hossin , বুধবার ৩ জুন ২০২০ @ ১০:০৯ পূর্বাহ্ন

    যে মূল্যবান কথাসমূহ দ্বারা সাইটটি সমৃদ্ধ, সেসব কথাসমূহ সোসাল মিডিয়াতে কপি করে প্রকাশের অনুমতি আছে কিনা। না থাকলে অনুমতি পাবার আবেদন রইল।

  • Md Humayun Kabir , মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ @ ৭:৫২ অপরাহ্ন

    Khob valo laglo

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!