ভবঘুরেকথা

সাধুদের আচরণ সদাচার কয়।
সদাচার ব্যতিরেকে কার্য্য সিদ্ধি নয়।।
আচার বিহীন ব্যক্তি ষরঙ্গ সহিত।
বেদ অধ্যয়ন করে হয়ে সাবহিত।।
যাবৎ আচার শুদ্ধ নাহি হয় তার।
ধর্ম্ম অর্থ কাম মোক্ষ হবে কি প্রকার।।
অতএব সাধুগণে মহারাজ জানি।
তাঁহাদের ব্যবহার সবে লও মানি।।

ভক্তি রসামৃত (সিন্ধু) হরিভক্তি বিলাস।
সেই সব উপদেশ করি যে প্রকাশ।।
মায়ামোহ বদ্ধ হয়ে হারায়েছি জ্ঞান।
দয়া কর ভক্তগণ পাইতে সন্ধান।।
‘তত্ত্বনিধি’ যে উপাধি ব্যাধি মনে করি।
শ্রীচরণ দাস হয়ে দন্তে তৃণ ধরি।।
তাই পিতৃদত্ত নাম ‘অশ্বিনী’ ঢাকিয়া।
বৈষ্ণবের পদরেণু লইনু মাগিয়া।।
ভক্তি হতে ভক্ত শ্রেষ্ঠ মনে গণি তাই।
পদরেণু দেও যত বৈষ্ণব গোঁসাই।

……………………………………..
তত্ত্বরসামৃত জ্ঞানমঞ্জরী
-শ্রীশ্রী চরণ দাস

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!