মতুয়া সংগীত

সবে পতি কর সার

(তাল-কাহারবা)
সবে পতি কর সার, পতি বিনে সতী নারীর গতি নাইরে আর।।
ভবে অসতী না পারে কভু পতির মনকে তুষিবার।।

১। অসতি যে করে লয় ঐ পর পতি আশ্রয়,
সদাচারে মন-প্রাণ তার কখন না যায়
সদা কুৎসিত বুলি কু-কর্ম্মেতে মত্ত থাকে অনিবার।।

২। ভর্ৎসনা স্বামীকে নারী করে দিবা নিশী,
শ্বশুর শাশুরী হয় যেন দাস দাসী।
কথা কয় না স্পষ্ট, প্রাণে কষ্ট দিয়ে চলে নিরন্তর।।

৩। দুর্ব্বাক্যেতে দুর্শ্চারিনী পরানে কষ্ট দেয়,
নিজা দেহ শান্তি রেখে, তাদের খাটায়।
খাটে নিরবধি তবু যদি, খেতে সইতে কষ্ট তার।।

৪। পুত্র হয়ে নারী বাধ্যে থাকিয়া সদায়,
বুড়া বুড়ির উপরে কুৎসিত গালি দেয়।
তাতে শাপ গ্রস্থ ব্যাধি যুক্ত নরকে বাস বংশ তার।।

৫। দীনা বরে মাতাগুণ শুন বলি তায়,
শ্বশুর শাশুরী পরম পূজ্য এ ধরায়।
পুজো তাদের পদ, পতি ভজ, এ ভিন্ন গতি নাই আর।।

………………………………
রাগিনী-জয় জিয়ালই

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!