মতুয়া সংগীত

সাধন করবি কি

(তাল-গড়খেমটা)
সাধন করবি কি তুই মলে,
ভজন করবি কি তুই মলে।
গুরু ধরার সময় হয়না,
ওজর দেও কাজ আছে বলে।।
১। (ভাবছ) মন্ত্র যেদিন নিব, বন্ধু বান্ধব খাওয়াইব,
যোগাড় যন্ত্র বহুত লব, নাম নিব বাড়ী গুরু এলে।
তোর ওজর যায় না, সময় হয়না, এই ভাবে দিন চলে
আজ নিবি কাল নিবি মন্ত্র,
আশায় আশায় দিন খুয়ালে।।

২। আয়ু যদি ঘাষ বৎসর হয়,
ওজরে সেই দিন কেটে যায়,
কাছে আসে অন্তিম সময়, মনে কয় গুরু কোথা মিলে।
নাম না নিলেম, কি করিলেম, বয়সের সময় কালে,
এমন সুধা থুইয়ে গরল খেলেম, জনম গেল মায়ার ছলে।।

৩। (যেমন) গরু অমর ঔষধ চিনে, আগে সে ভাবে মনে
খাব ঔষধ মৃত্যু দিনে, আশায় তাই রাখে খাব বলে।
জিহ্বা লেহায় মরণ সময়, কোথায় ঔষধ রলে,
তখন হায় হায় করে, যায় সে মরে,
ঔষধ পায়না কোন কালে।।

৪। আয়ু হেতার ঠিক দেওয়া, সেই দিনে হবে যাওয়া,
গুরু কেন না ধরিয়া, কু-কর্ম্মে মজ রসাতলে।
হবেনা তোর সাধন করা, গণার দিন ফুরালে,
যদি গণার দিনের একদিন কমে
সেই দিন পাবি কোথা গেলে।।

৫। আদিত্য বলে এবার, গুরুর চরণ কর সার,
এসব অনিত্য সংসার, মিছে কেন মর আমার বলে।
বোকা দীনবন্ধু গুরু ছাড়া রলি দস্যুর দলে,
তোর দস্যু আত্মা ঠেলে দে রে,
হরি গোসাইর চরণ তলে।।

…………………………
রাগিনী-উল্টাকেশী

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!