এই যে জন্মের ভেতর দিয়ে ব্রহ্মাণ্ডে গমনাগমনের যে যাত্রা। এই সব দেখাশোনা, কিছু অহেতুক ভাবনা, শব্দে-কথায় ধরে রাখার জন্যই এই ভবঘুরে কথা। এরবেশি কিছু নয়।

বুড়ি মা – আর আমারে মারিস নে মা

-মূর্শেদূল মেরাজ সকালে থেকেই একের পর এক ফোন আসছিল। আমি আধো ঘুমের মধ্যেই মোবাইলে নামগুলো দেখছিলাম কারা ফোন করছে। কিন্তু…

শ্রীরামকৃষ্ণ : সাধক ও সাধনা

-স্বামী সারদানন্দ সাধনা সম্বন্ধে সাধারণ মানবের ভ্রান্ত ধারণা ঠাকুরের জীবনে সাধকভাবের পরিচয় যথাযথ পাইতে হইলে আমাদিগকে সাধনা কাহাকে বলে তদ্বিষয়…

উনচল্লিশ বছর, পাঁচ মাস, চব্বিশ দিন : চার

-শংকর তৎক্ষণাৎ আমরা তিনজন গৃহী ভক্ত এবং উক্ত নন্দলাল ব্রহ্মচারীজি স্বামীজির দেহখানি বহন করিয়া ধীরে ধীরে সিঁড়ি দিয়া নামিয়া আসিয়া…

উনচল্লিশ বছর, পাঁচ মাস, চব্বিশ দিন : তিন

-শংকর …স্বামীজি তাহার পিঠ চাপড়াইয়া আদর করিলেন ও আশ্বাস দিলেন, অধিকন্তু সকলকে বলিয়া দিলেন, বাঘা যাহাই করুক, আর তাহাকে তাড়ানো…

উনচল্লিশ বছর, পাঁচ মাস, চব্বিশ দিন : এক

-শংকর শেষ পর্বের শুরু এবার। আশঙ্কিত হৃদয় নিয়ে আমরা চলেছি ৪ জুলাই ১৯০২-এর দিকে। কিন্তু এ দেশের সনাতন চিন্তাধারায় স্মরণীয়…

সন্ন্যাসীর শরীর : কিস্তি চার

-শংকর তবে যদি তোমার সুবিধা হয়, ৫০ টাকা টেলিগ্রাম করিয়া ঋষিবর মুখোপাধ্যায়, চিফ জজ, কাশ্মীর স্টেট, শ্রীনগর এঁর নামে পাঠাইলে…

সন্ন্যাসীর শরীর : কিস্তি তিন

-শংকর স্বামীগম্ভীরানন্দের রচনায় আমরা এই অবস্থার হৃদয়গ্রাহী বর্ণনা পাই- “সেদিন ক্রমাগত ঘর্মনিঃসরণের পর শরীর হিম হইয়া নাড়ী ছাড়িয়া গেল- যেন…

সন্ন্যাসীর শরীর : কিস্তি দুই

-শংকর এইসব চিকিৎসা ব্যবস্থায় ক্লান্ত হয়েই বোধ হয় অন্তিমপর্বে রোগের উপশম সম্পর্কে স্বামীজি বলেছেন (জুন ১৯০১), “উপকার অপকার জানিনে। গুরুভাইদের…

সন্ন্যাসীর শরীর : কিস্তি এক

-শংকর শরীরম্‌ ব্যাধিমন্দিরম্‌! এদেশের কোন মহাপুরুষ কথাটা প্রথম ব্যবহার করেছিলেন তা আমার জানা নেই। স্বামী বিবেকানন্দের অসুখবিসুখ সম্বন্ধে খবরাখবর নিতে…

বুদ্ধের জীবন থেকে

-সুকুমারী ভট্টাচার্য আড়াই হাজার বছরেরও বেশি আগেকার কথা। গৌতম বুদ্ধ ছিলেন সারা পৃথিবীরই একজন শ্রেষ্ঠ মানুষ, আজও তিনি সারা পৃথিবীর…
error: Content is protected !!