মহাতাপস বালানন্দ ব্রহ্মচারী: তিন

গোমতীস্বামী বললেন, সাধারণত যোগবিভূতিবলে এটা সম্ভব হয়। তবে আবার দ্রব্যগুণ বলেও এটা সম্ভব হয়। তিনি জানেন পারদ মেশানো গুটকা কোন…

সাধক তুলসীদাস: তিন

বৃন্দাবন ও নৈমিষারণ্য ভ্রমণের পর কাশীধামে গিয়ে বাস করতে থাকেন তুলসীদাস। প্রথমে কাশীর হনুমান ফটকে নিজের একটি চতুষ্পাঠী স্থাপন করেন।…

মহাতাপস বালানন্দ ব্রহ্মচারী: দুই

বাবা মহারাজের ঝুলিতে তখন ছিল কিছু কাঁচা তরি-তরকারি। আঙ্গুর বা কোন ফল ছিল না। কিন্তু ব্রহ্মানন্দ মহারাজ ঝুলির মধ্যে হাত…

শ্রীশ্রী মোহনানন্দ স্বামী: তিন

একদিন ধ্যানকুটীরের বারান্দায় গুরুদেব বালানন্দ স্বামী বসে দুই একজন শিষ্যের সঙ্গে কথা বলছেন। মোহনস্বামী সংকোচের সঙ্গে কাছে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এমন…

সাধক তুলসীদাস: দুই

কিন্তু ইষ্টদর্শন না পেয়ে তুলসীর মনমেজাজ ভালো ছিল না। তাই তিনি তাদের রেগে বললেন, চলে যাও এখান থেকে। নাচের কোন…

শ্রীশ্রী মোহনানন্দ স্বামী: দুই

মনোমোহন আরও ভাবলেন, তাঁর গুরুদেব শৈব না শাক্ত না বৈষ্ণব -এ বিচার বা প্রশ্ন তিনি কোনদিন করবেন না। যদিও তিনি…

সাধক তুলসীদাস: এক

প্রয়াগের নিকট বান্দা জেলার অন্তর্গত রামপুর গ্রামে পণ্ডিত আত্মারাম নামে পরাশর গোত্রীয় এক ব্রাহ্মণ বাস করতেন। ধর্মপ্রাণ ও সুপণ্ডিত হিসাবে…

শ্রীশ্রী মোহনানন্দ স্বামী: এক

রজতগিরিসন্নিভ তাঁর অঙ্গচ্ছটা, ভস্মানুলেপিত গাত্রচর্ম, ত্রিপুণ্ডক অঙ্কিত বিশাল ললাট, মস্তকে সর্পাকৃতি জটাজাল, পরিধানে সামান্য কৌপীন। এ এক অদ্ভুত সন্ন্যাসী। ইনি…

আচার্য্য শঙ্করাচার্য: ছয়

আচার্য শঙ্কর ঘুরতে ঘুরতে আবার শৃঙ্গেরীতে এসে উপনীত হলেন। পৌরাণিক যুগের ঋষি বিভাণ্ডক ও ঋষ্যশৃঙ্গের তপস্যাপূত এই মনোরম স্থানটিতে একটি…

মহাতাপস বালানন্দ ব্রহ্মচারী: এক

উনিশ শতকের দ্বিতীয়ার্ধে ১৮৬০ সালে উজ্জয়িনীর এক সারস্বত ব্রাহ্মণবংশে জন্ম হয় বালানন্দ ব্রহ্মচারীর। তাঁর পূর্বাশ্রমের নাম ছিল পীতাম্বর। তাঁর পিতা…
error: Content is protected !!