মতুয়া সংগীত

সুলভের বাণিজ্য

(তাল-একতালা)
সুলভের বাণিজ্য করব আশা ছিল।
হরিচাঁদ গুরুচাঁদ তরী ডুবে গেল।।

দাঁড়ি মাঝি রইছে বসে, এ তরী চলিবে কিসে,
গোলায় পড়ে মারা গেল, পেলাম না দিশে,
দিয়াছিলে যে কাণ্ডারী, সাধ করে ডুবালে তরী।
কি করিতে কিনা করি (আমার) ভবের খেলা ফুরিয়ে গেল।

যে মোকামে ব্যাপার হবে, সে মোকামের খবর পেয়ে,
রাজি নয় মোর পাঁজি নেয়ে, তথায় গেল না,
ঠগ বাজারে উঠছে তারা, ব্যাপার থাক যাই প্রাণে মারা,
মাল নিয়ে করিছে সারা, (এখন) রোদ লেগে বাইন চটে গেল।।

দাঁড়ি মাঝি যুক্তি করে, মাল দিয়েছে বাটপাড়েরে,
খবর না গেল হুজুরে (তার), মাল হল পয়মাল,
বিপাকে এখন করি কি, হরিচাঁদ বলিয়া ডাকি,
(আমার) এই ভাবে দিন যাবে নাকি, সমূলে লোকসান হইল।

এক বাজারে লাগাই তরী, ঠগের হাতে প্রাণে মরি,
মন ভুলায়ে করে চুরি, সেধে দিলাম ধন,
একদিন ত’ নয় নিত্য নিত্য এই ভাবে হল দৌরাত্ম,
ধন বলে না হ’ল আর্তি, বেহুসারে ধন ফুরাল।

হরিচাঁদের প্রেম বাজারে, শ্রীগুরুর গলির ভিতরে,
পাগলচাঁদ যায় চৌকি ফিরে, তাতে হয় চুরি,
তারকচাঁদ কয় যায় না সওয়া, নিত্য নিত্য যায় মাল খোয়া,
উচিৎ এদের তাড়িয়ে দেওয়া, (নয়) হরের ধন সব হরে নিল।

……………………………………………………..
হরিবর সরকার

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!