মতুয়া সংগীত

হরিনাম-ধর্মে মত্ত

গোস্বামীর মতুয়া ধর্ম্ম প্রচার ও তিরোধন

হরিনাম-ধর্মে মত্ত রমণী গোঁসাই।
দুঃখী তাপী তার কাছে সদা ছোটে তাই।।
রোগে শান্তি মনে শান্তি পায় নারী নরে।
দিনে দিনে নাম গেল দেশ দেশান্তরে।।
সদর খুলনা মধ্যে বসুর আবেদে।
গোস্বামীরে নিল ভক্ত পরম আহলাদে।।
ভক্ত গৃহে হরিনাম করে গুণধাম।
সাথে সাথে নরনারী করে হরিনাম।।
তার্কিক ব্রাহ্মণ এক আসিয়া সেখানে।
বৃথা তর্কে হার মানে গোস্বামীর সনে।।
রুদ্ধ ক্রোধে সেই দৃষ্টি করে কৃমন্ত্রণা।
গোস্বামীকে দিতে চায় বিষম যন্ত্রণা।।
হরি যারে রক্ষা করে তারে কে বা মারে।
গোস্বামীকে দেখে যত দুষ্ট গেল সরে।।
মাট ভাঙ্গা, দেবী তলা, বয়ার ভাঙ্গায়।
দিনে দিনে গোস্বামীর বহু শিষ্য হয়।।
উঠিল নামের ঢেউ এই সব দেশে।
ক্রমে ক্রমে চলে ঢেউ প্রেমের বাতাসে।।
সাতক্ষীরা মহাকুমা মধ্যে বহু স্থানে।
গোস্বামীকে নিল সঙ্গে কীর্ত্তি কথা শুনে।।
সদর খুলনা মধ্যে লবণগোলায়।
বিহারী সদ্দার নামে অতি মহাশয়।।
রূপচাঁদে দেখি তার মন ভুলে গেল।
গুরুত্বে বরণ করে শ্রেষ্ঠ শিষ্য হল।।
মোল্লাহাট থানা মধ্যে আছে বহু গ্রাম।
বহু স্থালে যায় সেই সাধু গুণ ধাম।।
শিবপুর, জয়ডিহি, শিয়ালীর গাঁয়।
নগরকান্দীর গ্রামে গোস্বামীজী যায়।।
যশোহর মধ্যে তেঁহ যায় বহু স্থালে।
শুলটীয়া, গাছবাড়ী, গ্রামে সদা চলে।।
কামার গ্রামেতে প্রায় করে যাতায়াত।
প্রচার করিল সাধু ওড়াকান্দী মত।।
ওড়াকান্দী গ্রাম মধ্যে কেতুরাম দাস।
রূপচাঁদে গুরু বলে করিল বিশ্বাস।।
তের শত সাইত্রিশ সনে একবার।
দাসেরা করিল বটে মন্দ্র ব্যবহার।।
বারুনীতে ‘‘সার্কাসের’’ দল যেতেছিল।
কাঙ্গালী দাসের চক্রে তারা বাধা পেল।।
গুরুচাঁদ আজ্ঞা দিল রূপচাঁদ যায়।
পরে সেই গোলমাল সুমীমাংসা হয়।।
এই ভাবে দেশে দেশে করেন ভ্রমণ।
যেথা যায় সব খানে কহেন বচন।।
‘‘ওড়াকান্দী হরিচাঁদ পূর্ণ অবতার।
এবে গুরু-চাঁদে আছে ত্যজি কালেবর।।
সেই পদে মনে প্রাণে লহরে শরণ।
আর না আসিবে হেন মানুষ রতন।।’’
তার চেষ্টা ফলে দেখ অতি অল্পকালে।
বহু লোক আসিলেন মতুয়ার দলে।।
ক্রমে এল তেরশত আটত্রিশ সাল।
গোস্বামী ছাড়িল দেহ সকাল সকাল।।
শিষ্যগণে ডাকি বলে ‘‘পোড়ায়োনা দেহ।
কলা ভেলা পরে হবে মোর শেষ গেহ।।’’
স্বতেজে স্বজ্ঞানে সাধু বসি পদ্মাসনে।
ত্যাজিল নশ্বর দেহ জ্যোতিঃ বিকীরণে।।
শেষ ইচ্ছা মতে দেহ জলে ভাসাইল।
ভক্ত সবে বহু দুঃখে অনেক কান্দিল।।
ভকত চরিত্র কথা সুধা হতে সুধা।
কবি কয় খেলে দুর হবে ভব ক্ষুধা।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!