কবি কাজী নজরুল ইসলাম

কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

শংকর অঙ্কলীনা যোগমায়া

শংকর-অঙ্কলীনা-যোগমায়া শংকরী শিবানী। বালিকা-সম লীলাময়ী নীল-উৎপল-পাণি॥ সজল-কাজল-বর্ণা মুক্তবেণী-অপর্ণা তিমির-বিভাবরী-স্নিগ্ধা শ্যামা কালিকা ভবানী॥ প্রলয়-ছন্দময়ী চণ্ডী শব্দ-নূপুর-চরণা শাম্ভবী শিব-সীমন্তিনী শংকরাভরণা। অম্বিকা দুঃখহারিণী শরণাগততারিণী জগদ্ধাত্রী শান্তি-দাত্রী প্রসীদ মা ঈশানী॥

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

মা যে গোলাপ সুন্দরী

(আমার) মা যে গোলাপ সুন্দরী। এক বৃন্তে কৃষ্ণকলি, অপরাজিতার মঞ্জরী॥ (সে) আধেক পুরুষ আধেক কৃষ্ণা নারী অর্ধ কালী অর্ধ বংশীধারী (মা) অর্ধ অঙ্গে পীতাম্বর আধেক সে দিগম্বরী॥ (সে) এক পায়ে প্রেম-কুসুম ফোটায় নূপুর-পরা সেই চরণ। (মা-র) সেই পায়ে রয় সর্প-বলয় সে পায়ে প্রলয়-মরণ। আধো ললাটে অগ্নি-তিলক জ্বলে চন্দ্রলেখা আধেক ললাট-তলে। শক্তি আর ভক্তিতে মা আছেন […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

তোর রাঙা পায়ে নে মা শ্যামা

তোর রাঙা পায়ে নে মা শ্যামা আমার প্রথম পূজার ফুল। ভজন-পূজন জানি না মা হয়তো হবে কতই ভুল॥ দাঁড়িয়ে দ্বারে ‘মা, মা’ বলে ভাসি মাগো নয়ন-জলে, ভয় হয় মা ছুঁই কেমনে মা তোর পূজার বেদিমূল। আশ্রয় মোর নাই জননী ত্রিভুবনে কোথাও হায়! দাঁড়াই মাগো কাহার কাছে তুইও যদি ঠেলিস পায়। হানে হেলা সবাই যারে তুই […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

তোমার পূজার ফুল ফুটেছে

তোমার পূজার ফুল ফুটেছে মা গো আমার মনে। তুমিই এসে লহ যে ফুল তোমার শ্রীচরণে॥ কখন তুমি মনের ভুলে চরণ দিয়ে হৃদয় ছুঁলে, কমল হয়ে ফুটল হিয়া তোমার পরশনে॥ মা গো, সেই ফুল ঠাঁই পাবে কি তোমার গলার মালায়? সে ফুল কবে রাখব তোমার নিবেদনের থালায়? তোমার চলার পথের ধূলি ছেয়ে দিলাম সে ফুল তুলি […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

মা মেয়েতে খেলব পুতুল

মা মেয়েতে খেলব পুতুল আয় মা আমার খেলা-ঘরে। (আমি) মা হয়ে মা শিখিয়ে দেব পুতুল খেলে কেমন করে॥ কাঙাল অবোধ করবি যারে বুকের কাছে রাখিস তারে (নইলে কে তার দুখ ভোলাবে – যারে রত্ন-মানিক দিবি না মা উচিত সে তার মাকে পাবে) (আবার) কেউ বা ভীষণ দামাল হবে (কেউ) থাকবে গৃহকোণে পড়ে॥ মৃত্যু সেথা থাকবে […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

কালি মেখে জ্যোতি ঢেকে

(তুই) কালি মেখে জ্যোতি ঢেকে পারবি না মা ফাঁকি দিতে। (ওই) অসীম আঁধার হয় যে উজল মা তোর ঈষৎ চাহনিতে॥ মায়ের কালি-মাখা কোলে শিশু কি মা যেতে ভোলে? আমি) দেখেছি যে, বিপুল স্নেহের সাগর দোলে তোর আঁখিতে॥ কেন আমায় দেখাস মা ভয় খড়্গ নিয়ে, মুণ্ড নিয়ে? আমি কি মার সেই সন্তান ভুলাবি মা ভয় দেখিয়ে? […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

কে তোরে কী বলেছে মা

কে তোরে কী বলেছে মা ঘুরে বেড়াস কালি মেখে। (ও মা) বরাভয়া, ভয়ংকরীর সাজ পেলি তুই কোথা থেকে॥ (তোর) এলোকেশে প্রলয় দোলে (আমি) চিনতে নারি গৌরী বলে (ওমা) চাঁদ লুকাল মেঘের কোলে তোর মুখে না হাসি দেখে॥ (ও মা) আমার দেবলোকে কেন খেলিস এমন নিঠুর খেলা? আনন্দেরই হাটে সতী বসালি পাঁচ ভূতের মেলা। শংকর কি […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

শ্যামা নামের ভেলায় চড়ে

শ্যামা নামের ভেলায় চড়ে কাল-নদীতে দুলি ঘাটে ঘাটে ঘটে ঘটে সুরের লহর তুলি। কাল-তরঙ্গে ভাসিয়ে অঙ্গ দেখে বেড়াই কতই রঙ্গ ; কায়ায় কায়ায় রং-বেরঙের শত মায়ার ধূলি॥ জন্মান্তর ঘাটে ঘাটে ভাসি, উঠি, ডুবি ; কেবলই মা ডাকে আমায় – ‘আয় আমারে ছুঁবি।’ (মোরে) কালস্রোতে ভাসাবার ছলে লীলা দেখান নাটমহলে, (মা) আপনি এসে খেলার শেষে বক্ষে […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

তুমিই দিলে দুঃখ অভাব

তুমিই দিলে দুঃখ অভাব তুমিই করো ত্রাণ। দীনতারিণী, মঙ্গলময়ী শরণাগত প্রাণ॥ যখন পরম নির্ভরতায় শরণ যাচি তোমারই পায় (তুমি) আপন হাতে বিনাশ কর সকল অকল্যাণ॥ (আমি) অহংকারে রাখতে যাহা চাই গো আমার বলে হরণ করে লও তুমি তা ভাসিয়ে চোখের জলে। তাই তো আমার সংসার-ভার মা গো তোমায় দিলাম এবার, আমার বলে রইল শুধু তোমার […]

বিস্তারিত পড়ুন
কাজী নজরুল ইসলাম কবি কাজী নজরুল ইসলাম

ব্রহ্মময়ী জননী মোর

(মা) ব্রহ্মময়ী জননী মোর (মোরে) অব্রাহ্মণ কে বলে? শ্যামা নামের জঠরে মোর নব জন্ম ভূতলে॥ (মা) চণ্ডিকারে মা বলে রে আমি হলাম দ্বিজ। (আমি দ্বিতীয়বার জনম নিলাম) (মা) আদর করে নাম রেখেছেন পুত্র মনসিজ। (আমি যে মা-র মানস-পুত্র) (তাই) অক্ষমালার যজ্ঞোপবীত মা পরালেন মোর গলে॥ রুদ্রাক্ষ মালার যজ্ঞোপবীত মা পরালেন মোর গলে॥ (মোরে) কে কবে […]

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!