খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:৪

খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:৪

কুতুবউদ্দিন কাকীকে লেখা পত্র – চার

মারফত ও হকিকত সম্পর্কে অবগত, আশেকে রাব্বুল আলামিন। প্রিয় ভাই খাজা কুতুবুদ্দিন দেহলবি! স্মরণ রেখো, মানুষের মধ্যে শ্রেষ্ঠ ওই ফকির যে দরবেশি ও অনাকঙ্ক্ষা স্বীকার করেছে। কারণ প্রতিটি মুরতের না-মুরত আছে এবং না-মুরতের মুরত আছে।

কিন্তু এর বিপরীত আহলে গাফেলরা প্রকৃত সুস্থতা-পীড়া এবং পীড়াকে প্রকৃত সুস্থতা ধারণা করে নিয়েছে। উপযুক্ত ওই ব্যক্তি যার অন্তরে কোন দুনিয়াদারির খেয়াল আসা মাত্র সে তা দূরীভূত করে না-মুরত ও তায়েক্কুল অবলম্বন করে।

অতএব বান্দার একান্ত কর্তব্য যে, সে কেবল মাত্র খোদার মহ্ববতের রঙ সর্বদা আপন অন্তরে জমিয়ে রাখবে। কারণ একমাত্র আল্লই অনাদি ও অনন্ত। যদি খোদার রহমতের দরজা সৌভাগ্রক্রমে বান্দার সম্মুখে খুলে যায় তবে সে দিকেই দৃষ্টিপাত করবে সে দিকেই খোদার চেহারা ব্যতীত অন্য কিছু দেখবে না।

সে দোজাহানের যে দিকেই দৃষ্টিপাত করবে সে দিকে খোদার হকিকত প্রত্যক্ষ করবে। কাজেই নিজের চক্ষুদ্বকে এ রকম কামাল আনোয়ারে পরিপূর্ণ করতে চেষ্টা কর।

কামাল আনোয়ারে পরিপূর্ণ চক্ষু দ্বারা লক্ষ্য করলে প্রতিটি ধূলি-কণাতেও অনাদি অনন্ত, সর্বশক্তিমান খোদার প্রত্যক্ষ নিদর্শন হৃদয়ঙ্গম করতে পারবে। জাহেরি সাক্ষাতের আকাঙ্খা ব্যতীত অধিক আর কি লিখবো।

…………………….
আরো পড়ুন:
খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:১
খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:২
খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:৩
খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:৪
খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:৫
খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:৬
খাজা মঈনুদ্দিন চিশতী পত্র:৭

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!