স্বামী নিত্যানন্দ গিরি

: বিচার সাগর :

আমি দীন অভাজন, প্রভু তুমি মহাজন
রক্ষা করো হে জনার্দন,
আর্তের প্রার্থনা শুনে ভক্তের প্রমাদ গুনে
আবির্ভাব হও বিপদভঞ্জন।।১

যার যেমন দৃষ্টিভঙ্গি, বাছে তার জীবন সঙ্গী
কৃষ্ণ ভগবানে করি অঙ্গী,
পুনর্জন্ম বড় বিপদ, এড়াতে ধরি তব পদ
তুমি যে আমার সহায় সম্পদ।।২

যে যেমন করেছে কর্ম নাজেনে কর্মের মর্ম
সে ভুগছে কর্ম ফল তার,
মোহের রঙিন চশমা পড়ে দেখে রঙিন সংসার
সবাই তো নয় শঙ্করাচার্য, বলবে মিথ্যা সংসার।।৩

বলছে সুখ নাই, অজ্ঞানী বৃথা খুঁজে এ সংসারে
জ্ঞানী বলে সে সুখ নয়, সুখের আভাস বলে তারে,
দুধের জল বের করে ঘী পনিরের করে ব্যাপার
বিবেক হলে অপারবুঝবে দেহ মধ্যে দেহী সার।।৪

নাম রূপ উপাধি নিয়ে দৃশ্যমান এ সংসার
তাই আদি ব্যাধিতে ভুগতে হয় বারবার,
যখনই মিটে যাবে নাম রূপ আর উপাধি
সংযম সাধনায় যদি হয় তোমার সমাধি।।৫

হলে অনুভূতি আমি দেহ নই, কিছুই নয় আমার
এ দেহ আবরণ মাত্র চৈতন্য সত্তাই সার,
আমি নই ক্ষুদ্র, ব্যাপ্ত আমি অখণ্ড মণ্ডলাকার
আমি-ই সব তখন হয়ে যায় সবাই আমার।।৬

জীব হয়ে না থেকে সংসারে শিব হও একবার
দেখবে তখন মনে আসছে না কোন বিকার,
আত্মা তে হলে স্থিত নিজেই করবে স্বীকার
দেহ আমি নই দেহ আমার, এটা করো বিচার।।৭

দুঃখে মানুষ বলে, মরণ হয় না কেন আমার
জ্ঞান বিনা দুঃখ জীবন থেকে নাই যাবার,
গের কৌশল জানলে থাকবে না অন্ধকারে
ঈশ্বর সে ক্ষমতা দিয়েছেন তোমারে আমারে।।৮

পাপ করেছ রাশি রাশি, ভুগবে কি তোমার মাসি পিসি
ভাগ্যের লিখন করেছ নিজেই, হাতে ধরে কলম মসি।।৯

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!