স্বামী নিত্যানন্দ গিরির বাণী: সতেরো

স্বামী নিত্যানন্দ গিরির বাণী: সতেরো

: গীতা ধ্যানের মর্ম :

ভগবানের অমৃত বাণী গুঢ় রহস্য অতি ঘোর
গীতার সামান্য জ্ঞান নিয়ে বলি, সাধ্য নাই মোর,
পার্থের বোধ জাগাতে বলেন স্বয়ং কৃষ্ণ নারায়ণ
দ্বৈতজ্ঞানে হয় ভ্রম, অদ্বৈত জ্ঞানে খুলে ত্রিনয়ন।।১

১৮ অধ্যায়ে ভগবান করলেন সুন্দর বর্ণন
নষ্ট করতে ত্রিতাপ করলেন জ্ঞানামৃত বর্ষণ,
প্রস্ফুটিত পদ্ম পলাশ, আপনার নয়নযুগল
জ্ঞানময় প্রদীপ জ্বালালেন মর্ত্যবাসীর সকল।।২

বেদ-উপনিষদের যে সারতত্ত্ব ইহাতেই রয়
ধর্ম শাস্ত্রের শ্রেষ্ঠ গীতা জানিও তা নিশ্চয়,
কংস ও চাণূর নামে দৈত্যদের স্বয়ং বিনাশকারী
জগদগুরু শ্রীকৃষ্ণ কে আমি নিত্য বন্দনা করি।।৩

কর্ণের উত্তাল তরঙ্গ, দূর্যোধন রূপ আবর্ত ছিল
শ্রীকৃষ্ণ কর্ণধার হওয়ায়, সে রণনদী উত্তীর্ণ হয়েছিল,
পরাশর পুত্র ব্যাসদেবের বাক্য যেন পদ্মের মধু
কলিকলুষনাশক কল্যাণকারী, গীতা মাতা আমাদের শুধু।৪

যার কৃপায় বাকহীন হয় বাগ্মী, পঙ্গু গিরি করে পার
পরমানন্দ হবে তারই কৃপায়পার হবে দুস্তরসংসার,
ব্রহ্মা বরুণ ইন্দ্র রুদ্র দেবতা যার না পায় পার
অধম দীন ভক্তজনের স্বীকার করুন নমস্কার।।৫

মানুষ হয়েও মনুষ্যত্ব যে করে না বিশেষ অর্জন
মনুষ্যত্ব লাভের জন্য প্রয়োজন গীতা অধ্যয়ন,
গীতার মধ্যেই পাবে সকলে সত্যের সাধন
আত্মদর্শনের কৌশল পাবেসে এক অমূল্য রতন।। ৬

সংসার জীবনের সাথে করলে যোগ ক্রিয়া
সংসারে পাবে সে সঠিক পথ, দিব্য জ্ঞান দিয়া,
করবে যোগ ক্রিয়া জেনে গুরু পরম্পরা
জীবনের প্রতি অধ্যায় থাকে কষ্টে ভরা।।৭

ভোগ-ত্যাগ দুই করবে, এতে আছে পরা শান্তি
গুরুর নির্দেশে কর ক্রিয়া কেটেযাবে সব ভ্রান্তি,
নানা পথে নানা মতে চললে সংসার জীবনে
লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে মানুষ পৌঁছে গভীর অরণ্যে।।৮

গৃহযুদ্ধে সর্বনাশ সংসারে সব লোকে বলে
সংসারেও মনের এই যুদ্ধ সর্বক্ষণ চলে,
কুরুক্ষেত্র-ই দেহক্ষেত্র, এর অন্ধ রাজা মন
ভোগের স্বরূপ তার থাকে হিংসা সর্বক্ষণ।।৯

দ্রৌপদীর মত যদি করে কেউ পূর্ণ সমর্পণ ‌
সংসার জীবনেও তিনি রক্ষা করেন সর্বক্ষণ,
গীতা ১টি শিক্ষা দেয়, গীতা উল্টোলে ত্যাগী হয়
আসক্তি ত্যাগ করলে তুমি সদা থাকবে অভয়।। ১০

………………….
দেখুন:
স্বামী নিত্যানন্দ গিরির সকল বাণী

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!