রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আমার মন মানে না

আমার মন মানে না- দিনরজনী।
আমি কী কথা স্মরিয়া এ তনু ভরিয়া পুলক রাখিতে নারি।
ওগো, কী ভাবিয়া মনে এ দুটি নয়নে উথলে নয়নবারি-
ওগো সজনি।।

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

মায়বন বিহারিনী হরিণী

মায়বন বিহারিনী হরিণী
গহন স্বপন সঞ্চারিনী
কেন তারে ধরিবারে করি পণ
অকারণ
মায়াবন বিহারিনী।।

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

মনের মানুষ কাঁচা সোনা

দেখেছি রূপসাগরে
মনের মানুষ কাঁচা সোনা।
তারে ধরি ধরি মনে করি
ধরতে গিয়ে আর পেলাম না।।

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

প্রাণের মানুষ আছে প্রাণে

আমার প্রাণের মানুষ আছে প্রাণে।
তাই হেরি তায় সকল খানে।।

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কথা

রবীন্দ্রনাথের অধ্যাত্মচেতনা ও শ্রীরামকৃষ্ণ-প্রসঙ্গ

শক্তিসন্ধানী মানুষের পক্ষে উপরোক্ত বৈরাগ্যের চর্চা পরিহার করা সম্ভব নয়। কারণ, শান্তিলাভের বিকল্প অন্য কোনও পথ নেই বললেই চলে। উপরোক্ত ব্যাখ্যা অনুযায়ী রবীন্দ্রনাথ সঙ্কীর্ণ অর্থে বৈরাগ্যের চর্চা না করলেও তাঁর ঈশ্বরপ্রেম ও অনাসক্তি সাধনার মধ্য দিয়ে বৈরাগ্যের অন্তরঙ্গ সাধনা করেছিলেন।

বিস্তারিত পড়ুন
যীশু খ্রীষ্ট উৎসব

বড়দিন

-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর যাঁকে আমরা পরম মানব বলে স্বীকার করি তাঁর জন্ম ঐতিহাসিক নয়, আধ্যাত্মিক। প্রভাতের আলো সদ্য-প্রভাতের নয়, সে চিরপ্রভাতের। আমরা যখনই তাকে দেখি তখনই সে নূতন, কিন্তু তবু সে চিরন্তন। নব নব জাগরণের মধ্যে দিয়ে সে প্রকাশ করে অনাদি আলোককে। জ্যোতির্বিদ্‌ জানেন নক্ষত্রের আলো যেদিন আমাদের চোখে এসে পৌঁছয় তার বহু যুগ পূর্বেই সে […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কথা

অন্তরতর শান্তি

-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তুমি যে চেয়ে আছ আকাশ ভরে, নিশিদিন অনিমেষে দেখছ মোরে! তিনি যে চেয়ে রয়েছেন আমার মুখের দিকে, আমার অন্তরের মাঝখানে, এ কি উপলব্ধি করব এইখানে। এ-সব কথা কি এই কোলাহলে বলবার কথা। তারার আলোকে, স্নিগ্ধ অন্ধকারে, ভক্তের অন্তরের নিস্তব্ধলোকে, যখন অনন্ত আকাশ থেকে একটি অনিমেষ নেত্রের দৃষ্টি পড়ে তখন সেই নিঃশব্দ বিরলতার মধ্যেই […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কথা

আবির্ভাব

-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তুমি যে এসেছ মোর ভবনে রব উঠেছে ভুবনে। আশ্চর্য কথা এই যে আমরা এই গানে বলছি যে, তুমি আমার ভবনে অতিথি হয়ে এসেছ। এই একটি কথা বলবার অধিকার তিনি আমাদের দিয়েছেন। যিনি বিশ্বভুবনের সব জায়গা জুড়ে বসে আছেন, তাঁকেই আমরা বলছি, “তুমি আমার ভবনে অতিথি।’ কারণ, আমার ভবনে তাঁকে ডাকবার এবং না ডাকবার […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কথা

আরো

-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর আরো চাই, আরো চাই– এই গান উৎসবের গান। আমরা সেই ভাণ্ডারে এসেছি যেখানে আরো পাব। পৃথিবী ধনে ধান্যে পরিপূর্ণ, মানুষের ঘর স্নেহে প্রেমে পরিপূর্ণ। লক্ষ্মীর কোলে মানুষ জন্মেছে। সেখানে আমাদের প্রয়োজন মিটিয়ে দিন কেটে যাচ্ছে। এক-একদিন তার বাইরে এসে “আরো’র ভাণ্ডারের প্রাঙ্গণে দাঁড়িয়ে মানুষের উৎসব। একদিন মানুষ পৃথিবীতে দেবতাকে বড়ো ভয় করেছিল। কে […]

বিস্তারিত পড়ুন
রবীন্দ্রনাথা ঠাকুর কথা

দীক্ষার দিন

-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর আশ্রমকে যেদিন সত্য করে দেখতে হবে সেদিন আনন্দের সংগীত বেজে উঠবে, ফুলের মালা দুলবে, সূর্যের কিরণ উজ্জ্বলতর হয়ে উঠবে। কারণ, আনন্দের মধ্য দিয়েই সত্যকে দেখা সম্ভব হয়, আর-কোনো উপায়ে নয়। আমাদের একান্ত আসক্তি দিয়ে সব জিনিসকে বাইরের দিক থেকে আঁকড়ে থাকি; সেইজন্যই সেই আসক্তি থেকে ছাড়িয়ে ভিতরকার আনন্দরূপকে দেখবার এক-এক দিন আসে। আশ্রমের […]

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!