জিয়াউলহক মাইজভাণ্ডারীর বাণী: দুই

জিয়াউলহক মাইজভাণ্ডারীর বাণী: দুই

২১.
আমার একটা প্রশাসন আছে, যেখান থেকে এ বিশ্ব পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত।

২২.
জ্ঞানের যে সাধনা মনে উদারতা ও চরিত্রে দৃঢ়তা আনে সেটাই সঠিক জ্ঞান।

২৩.
মনে রাখবেন, পরস্পর সহযোগিতা ছাড়া সমাজে কেউ একা বাঁচতে পারে না।

২৪.
হালাল খাও, নামাজ পড়, আল্লাহ আল্লাহ জিকির কর, সব সমস্যা মিটে যাবে।

২৫.
আমাকে চিনো? আমি হজরত কেবলা কাবা, স্বয়ংসম্পূর্ণ, কোন অংশে কম নই।

২৬.
ভাণ্ডারী যেদিকে তাকায়, যাদের দিকে তাকায়, তাদের কি কোন অসুবিধা পারে?

২৭.
দুনিয়াতে এমন কি আছে আমরা দিতে পারি না? আপনি কি কিছু কম পেয়েছেন?

২৮.
ধনী-গরীব কোন কথা নয়, সবাই মানুষ, মানুষে মানুষে প্রীতিভাব থাকা প্রয়োজন।

২৯.
রাহমাতুল্লিল আলামীন রাসূলের রহমতের সীমা জুড়ে আমার বেলায়তি কর্মক্ষমতা।

৩০.
মক্কা শরীফ, মদিনা শরীফ, বাগদাদ শরীফ, আজমির শরীফ আমাদের পুরান বাড়ি।

৩১.
পকেটে এক টাকা নাই, লাখ লাখ টাকার গল্প করে এমন লোক থেকে দূরে থাকবে।

৩২.
আমার দরবার প্রাচ্যের বায়তুল মোকাদ্দেস-আল্লাহর ঘর, সকল জাতির মিলন কেন্দ্র।

৩৩.
নিজের ভেতর দৃষ্টি দাও, বহির্জগতের চেয়েও অপরূপ সুন্দর দৃশ্যাবলী দেখতে পাবে।

৩৪.
নিয়মিত নামাজ রোজায় অভ্যস্ত হলে আয় বৃদ্ধি, রোগশোক মুক্তি ও দেহমন সুস্থ থাকে।

৩৫.
আমার দরবার আন্তর্জাতিক প্রশাসন অফিস, যেখান থেকে এই বিশ্ব পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত।

৩৬.
আকাশের উপরে বসে আমি সৃষ্টির কাজকর্ম দেখি; উপরের দিকে আল্লাহর সাথে কথা বলি।

৩৭.
আমার দরবার আন্তর্জাতিক সামরিক আইন প্রশাসন অফিস, আমি ভেঙ্গে চুড়ে সব ঠিক করি।

৩৮.
ভয়, বিশ্বাস ও আদবের সাথে যারা এই দরবারের ঘেরার মধ্যে প্রবেশ করবে, সকলে মুরিদ।

৩৯.
কাজের জন্যই জগৎ জীবন ও আল্লাহ-রাসূলের বিধান। যে কোন ভাল কাজ আল্লাহর ইবাদত।

৪০.
এক মূহুর্তে জগতকে পানি করে আবার বানাতে পারি, এমন ক্ষমতা আল্লাহ আমাকে দিয়েছেন।

৪১.
আল্লাহর সৃষ্টি বড় বৈচিত্রময়, সৃষ্টি অবলোকন করছি। সৃষ্টিকে অবলোকন করবেন, তাতে জ্ঞান হয়।

……………..
আরো পড়ুন:
জিয়াউলহক মাইজভাণ্ডারীর বাণী: এক
জিয়াউলহক মাইজভাণ্ডারীর বাণী: দুই
জিয়াউলহক মাইজভাণ্ডারীর বাণী: তিন

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!