রাধারমণ দত্ত

ওরে ও রসিক সুজন নাইয়া

ওরে ও রসিক সুজন নাইয়া ভবাসাগর পাড়ি দেও রে
বেলা যায় গইয়া।।
বেলা গেলে বিপদ হবে পন্থ আন্ধারিয়া–
আগে ভাগে পাড়ি ধরো মাঝি মাল্লা বুঝাইয়া।।

আসিতে আসিয়াছিলে বোপারের মূল লইয়া
লোকসান গিয়া কত রাইছে দেখাচ্ছে নি তলাইয়া
সাবধানে চালাইও তাঁরী বাদাম তুলিয়া–
কাম কুম্ভীর পথে মাঝে রইছে ওৎ পাতিয়া।।

সময় চিনিয়া পাড়ি ধরিয়া যাইবে পার হইয়া
অসময়ে পাড়ি ধরলে মরিবে ডুবিয়া
ছয় জনে ডাকাতি করি নিবে মালা লুটিয়া
সে সময় দিশা পাবে না ভাবিয়া চিন্তিয়া।
সময় থাকতে চলো মন ভাবিয়া চিন্তিয়া।।

না ভাবিলে মারা যাবে বিপাকে ঠেকিয়া
সহায়কারী নাহি পাবে সুরসার করিয়া।
ভাবিয়া রাধারমণ বলে গুরু দিশা হইয়া
আমারে তরাইয়া লইও অধম জানিয়া।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!