ওহে জীবনবল্লভ, ওহে সাধনদুর্লভ,
আমি মর্মের কথা অন্তরব্যথা কিছুই নাহি কব–
শুধু জীবন মন চরণে দিনু বুঝিয়া লহো সব।
( দিনু চরণতলে– কথা যা ছিল দিনু চরণতলে–
প্রাণের বোঝা বুঝে লও, দিনু চরণতলে। )
আমি কী আর কব।।

এই সংসারপথসঙ্কট অতি কন্টকময় হে,
আমি নীরবে যাব হৃদয়ে লয়ে প্রেমমুরতি তব।
( নীরবে যাব– পথের কাঁটা মানব না, নীরবে যাব।
হৃদয়ব্যথায় কাঁদব না, নীরবে যাব। )
আমি কী আর কব।।

আমি সুখদুখ সব তুচ্ছ করিনু প্রিয়-অপ্রিয় হে–
তুমি নিজ হাতে যাহা সঁপিবে তাহা মাথায় তুলিয়া লব।
( আমি মাথায় লব– যাহা দিবে তাই মাথায় লব–
সুখ দুখ তব পদধূলি ব’লে মাথায় লব। )
আমি কী আর কব।।

অপরাধ যদি ক’রে থাকি পদে, না করো যদি ক্ষমা,
তবে পরানপ্রিয় দিয়ো হে দিয়ো বেদনা নব নব।
( দিয়ো বেদনা– যদি ভালো বোঝ দিয়ো বেদনা–
বিচারে যদি দোষী হই দিয়ো বেদনা। )
আমি কী আর কব।।

তবু ফেলো না দূরে, দিবসশেষে ডেকে নিয়ো চরণে–
তুমি ছাড়া আর কী আছে আমার ! মৃত্যু-আঁধার ভব।
( নিয়ো চরণে– ভবের খেলা সারা হলে নিয়ো চরণে–
দিন ফুরাইলে, দীননাথ, নিয়ো চরণে। )
আমি কী আর কব।।

………………
রাগ: কীর্তন
তাল: একতাল
রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ৮ বৈশাখ, ১৩০১
রচনাকাল (খৃষ্টাব্দ): 1894
স্বরলিপিকার: কাঙ্গালীচরণ সেন

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!