মতুয়া সংগীত

গুরু জেনে কেন

(তাল-গড়খেম্টা)
গুরু জেনে কেন ধরনা,
গুরু চিনে কেন ধরনা।
মন গুরু হয় সর্বশ্রেষ্ঠ পরের কথায় ভুলিও না।।

১। কেহ করে এই প্রবঞ্চ, মাতা পিতার গুরু বংশ,
নাম না নিলে হরি ধ্বংশ, গুরুত্যাগী কেউ তোকে ছোবেনা।
ঐ কথা ভাই বাজে কথা, তাতে মন দিও না
কুল গুরু না ধরিলে, কখন গুরু ত্যাগী হয় না।।

২। কুল গুরু বংশ ধরে, বোবা পাগল হলে পরে,
তবে নাকি গুরু করে, কেমনে শিখিবি সাধনা।
নিজে না জানিলে, ধর্ম্ম শিকাতে পারেনা,
এমত সিদ্ধান্ত, গীতায়, ভাগবতে আছে নিশানা।।

৩। যার কাছে চলে যায় মন, গুরু করে পুজ চরণ।
তাঁরে ভুলিও না কখন, জ্ঞান ক’র পূর্ণ কেলে সোনা,
ভাব ভক্তি ধন, প্রেমিক যে জন, গুরু হয় সেই জনা,
প্রেমিক গুরু ধর, করণ ধর, হরিনাম সদা জপনা।।

৪। কলিতে নাই দীক্ষা শিক্ষা, ভুলে যাও অন্য সব কল্পনা,
হরে নাম কেবলম্ কলৌ নাস্তব্য অন্যথা,
মনের ঘুচাও ময়লা, মন দুদিলা কুটিনাটি কু-ভাবনা।।

৫। বলব কি ভ্রান্ত নরগণে, দীক্ষা নেয় না ব্রাহ্মণ বিনে,
যজ্ঞসূত না দেখলে নয়নে, কঠিন দেহে ভক্তি জম্মেনা।
আদিত্য কয় ব্রাহ্মণ যে হয়, ব্রহ্ম থাকে জানা,
হরি গোসাইর বাণী, অক্ষয় জানি, দীনবন্ধু ছাড়িও না।।

…………………………………
লোকশিক্ষা
রাগিনী-উল্টাকেশী

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!