তোমার পরশ মাখা গান

তোমার পরশ মাখা গান

তোমার পরশ মাখা গান,
আজো আমি হায় শুনি নিরালায় সরস করে মনোপ্রাণ।
মাধবি পূর্ণিমা চাঁদিনী উজ্বলে
ফুলমালা গাঁথি সোহাগে বিরলে
চৈতালি মেলায় বটগাছের তলায় মালা বিনিময়ের স্থান।।

তুমি আজ কোথায় রয়েছো হে প্রিয় ঠিকানাবিহীন অজানায়
আর কি পাবোনা মিলনের লগন আমরা দুজনায়।
ব্যথা যদি দেবে বিরহ-বিরাগে
তবে কেন ভালোবেসে ছিলে আগে;
ছেড়ে গেছো তবু পোড়া বুকে জাগে
হাসিমাখা মুখখান।।

সেই বট গাছের পুরানো পাতা সব ঝরে পড়ে চৈতিখরায়
নতুন পাতা জাগে পাতাঝরা ডালে সবুজের রং ছড়ায়।
যেদিন চলে গেছে পুরানো হয়ে
ফিরে কেন আসে না নতুনের রূপ লয়ে;
জীবন কি কাটিবে ব্যথার বোঝা বয়ে
এই কি তোমার শেষদান।।

পাগল বিজয়ের পথ চাওয়া নয়ন আসাপথ আছে চেয়ে
আবার আসিবে মিলনের ছন্দে আনন্দের গান গেয়ে।
মেঘের ফাঁকে ফাঁকে চাঁদের কিরণরাশি
মনে মানে যেন তোমার মুখের হাসি;
লুকায়ে লুকায়ে তাই দেখ বুঝি আসি
প্রীতি ভালবাসার টান।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!