উকিল মুন্সি

নবীজির খাশমহলে যাবে যদি আয়রে মন
মাটির মত হইয়া খাঁটি পণ কর জীবন মরণ।।

মাটি থাকে মাঠে পড়ে, কোদালে কাটিয়া তারে
কুম্ভকারে এনে পরে কতই করে বিড়ম্বন,
তারপরে তুইল্যা চাকে, ঘুরায় তাকে ঘুরনীপাকে
পরিত্রাহি বলে ডাকে আশাতে রাখে জীবন।।

জল ঢাইল্যা কাঁদা করে আছারের পর আছার মারে
তবু নাহি ছাড়ে তারে পাঁড়াইয়া করে নরম,
তারপরে পিটাপিটি, কর কত টিপাটিপি
পরিপাটি রৌদ্রে শুকায় তখন।।

রৌদ্রে হলে ভাজা ভাজা, পুইনায় নিয়া সাজায় পাঁজা
সাজার উপর কত সাজা অনলে করে দাহন।।

পুইনার বাহির কইরা পরে, টুটা পাটা বাছাই করে
বিকি দেয় প্রেমের দরে, প্রেম বাজারে হয় চলন,
খরিদ্দার আসিয়া পরে হাতে ধরে ওজন করে
ওজনে ঠিক হইলে পরে ঠুকা দিলে করে কন্ কন্।।

তবু না সন্দেহ যায়, ধইরা নিয়া জলে চুবায়
যদি রে মন জল চুয়ায়, গ্রাহকে নেয় না ধন,
আল্লাহ নবীর করুণ আঠা, ভজন পথে পঞ্চ কাঁটা
সাড়ে চব্বিশ চন্দ্রের আটা, উকিল বলে কর গে সাধন।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!