মহাত্মা ফকির লালন সাঁইজি

নৈরাকারে ভাসছেরে এক ফুল।
সে যে ব্রহ্মা বিষ্ণু হরি আদি পুরন্দর
তাদের সে ফুল হয় মাতৃকুল।।

বলবো কী সেই ফুলের গুণ বিচার
পঞ্চমুখে সীমা দিতে নারে নর,
যারে বলি মূলাধার সেহি তো অধর
ফুলের সঙ্গ ধারা তাঁর সমতুল।।

নীরে অন্ত নাই স্থিতি সে ফুলে
সাধকের মূলবস্তু এই ভূমণ্ডলে,
বেদের অগোচর সে ফুলের নাগর
সাধুজনা ভেবে করেছে তার উল।।

কোথা বৃক্ষ কোথারে তার ডাল
তরঙ্গে পড়ে ফুল ভাসছে চিরকাল,
কখন এসে অলি মধু খায় সে ফুলি
লালন বলে চাইতে গেলে হয়রে ভুল।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!