রাধারমণ দত্ত

বাঁশি রে কইরেছিলে কতই পুণ্য

(বংশীবন্দনা।)
বাঁশি রে কইরেছিলে কতই পুণ্য
বাঁশি রে তুই ধন্য ধন্য, কৃষ্ণ বিনা কভু থাকো না।।
তোর মত কৃষ্ণপ্রীতি জগতে আর দেখি না।।
বাঁশি রে কুন সাধনে ওরে বাঁশি কৃষ্ণ কিরকমলে বসি
দিবানিশি করে আলাপনা।।

বাঁশি দেবাদিগন্ধৰ্ব্ব
ঋষি মুনি যার করে ভাবনা।।

বাঁশিয়ে জানো কি মোহিনী সদা উন্মাদিনী
বাঁশির ধ্বনি কৰ্ণে যায় শোনা।।

বাঁশি ত্ৰিজগতের মন আকর্ষি
তোর গুণের নাই তুলনা।।

বাঁশিরে বাঁশি কি অমিয় নিধি রাখে না কারো বলবুদ্ধি
কোন বিধি করিল সৃজন।।

বাঁশি হইতাম চাই সঙ্গের সঙ্গী
রাধারমণের এই বাসনা।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!