মাওলানা রুমি

-মূর্শেদূল মেরাজ

ফকির লালন সাঁইজি বলেছেন- ‘যে করে কালার চরণের আশা, জানো নারে মন তার কী দুর্দশা’। আসলেই তাই। যেজন ভাবের ঘরে চরণের আশা করে, তার দুর্দশার কথা সে নিজেও ব্যক্ত করতে পারে না। আর শত বাঁধা-বিপত্তি টপকে যদি ব্যক্ত করার প্রয়াশও করে তাও অপরে তা বোঝে না। সেই জনই এর মর্ম বোঝে যেজন নিজে ভাবের ঘরে বসত করে।

ব্যথিতের ব্যথা ভুক্তভোগীই কেবল অনুধাবন করতে পারে। বাকিদের কাছে তা তো হাস্যরসের গালগল্প মাত্র। তাদের কাছে মনের কথা বলতে গেলে, উপহাসের পাত্র হতে হয়। কিন্তু লোকারণ্যের মাঝে যদি একজনও ভাবের ঘরের মানুষ থেকে থাকে, তাহলে সে ঠিকই সেই কথার মর্ম বুঝতে পারে।

প্রত্যেকেই তার মনের গহীনের অব্যক্ত কথা নিজের মতো করে নিরবে প্রকাশ করে যায়। তবে একই পথের পথিক না হলে কেউ তা বুঝে উঠতে পারে না। সবাই যে কেবল মুখের ভাষায় মনের ভাব প্রকাশ করে তাও নয়। কেউ তার স্বভাবে-কেউ তার অভাবে-আবার কেউ তার ভাবে প্রকাশ করে।

বাঁশি যেমন সুরের মাধুরীতে প্রকাশ করে তার সকল অব্যক্ত কাব্য। আর যেজন সমব্যথী সেজন সেই সুরের অন্তনির্হিত বিরহ-বিচ্ছেদ বেদনার করুনগাঁথা শুনে, নিজ জীবনের অন্তমিল খুঁজতে শুরু করেন। আর এই মানব দেহরূপের প্রতীকী যে বাঁশি প্রতিনিয়ত তার আপন সুর বাজিয়ে চলে; তা কেবল ভাবের ঘরের মানুষের মনেই দাগ কাটে। আর তাতেই রচিত হয় মসনবীর মতো মহাকাব্য।

আর রুমির মসনবীর ভাব বুঝতে গেলেও ভাব শহরের বাসিন্দা হতে হবে। অরসিকে কি আর এই রস স্বাদ বুঝবে? সে কি আর ডুবতে পারবে এই রসে??

: রুমির মসনবী :

১১.

نى حريف هر كه از يارى بريد
پرده‏هايش پرده‏هاى ما دريد

নায়ে হারিফে হরকে আজ ইয়ারে যুরিদ,
পরদাহায়েশ পরদাহায়ে মা দরিদ।।

The reed is the comrade of everyone who has been parted from a friend:
its strains pierced our hearts.

অর্থ:
বাঁশি তারই সহচর হয়, যে বন্ধুর বিচ্ছেদে পরেছে। সেই তো বিচ্ছেদ দহন বুঝতে পারে যার হৃদয় বিচ্ছেদের সুরে খানখান হয়ে যায়।

১২.

همچو نى زهرى و ترياقى كه ديد
همچو نى دمساز و مشتاقى كه ديد

হামচু নায়ে জহরে ও তরইয়াকে কেদীদ,
হামচু নায়ে ও মছাজে ও মুশ্ তাকে কেদীদ।।

Who ever saw a poison and antidote like the reed?
Who ever saw a sympathiser and a longing lover like the reed?

অর্থ:
বাঁশের বাঁশি বিষও আবার তার প্রতিষেধকও। এ রকম সমব্যথী ও আকুল প্রেমিক আর কে দেখেছে?

১৩.

نى حديث راه پر خون مى‏كند
قصه‏هاى عشق مجنون مى‏كند

নায়ে হাদীসে রাহে পোর খুন মী কুনাদ,
কেচ্ছাহায়ে ইশকে মজনুন মী কুনাদ।।

The reed tells of the Way full of blood
and recounts stories of the passion of Majnun.

অর্থ:
বাঁশি বলে চলে, রক্তাক্ত দুর্গম প্রান্তরের গন্তেব্যের কথা। বাঁশি তো পাগল/দিওয়ানা প্রেমিকের আবেগের গল্প বলে চলে।

১৪.

محرم اين هوش جز بى‏هوش نيست
مر زبان را مشترى جز گوش نيست‏

মোহররমে ইঁ হুশে জুযবে হুশে নিস্ত।
মর জবান রা মুশতারি চুঁ গোশে নিস্ত।।

Only to the senseless is this sense confided:
the tongue has no customer save the ear.

অর্থ:
এই চৈতন্যের বোধশক্তি অচৈতন্য ছাড়া আর কেউ নয়। যেমন মুখের কথার স্বাক্ষী একমাত্র কান ছাড়া আর কেউ হতে পারে না।

১৫.

در غم ما روزها بى‏گاه شد
روزها با سوزها همراه شد

গার না বুদে নালায়ে নায়ে রা সামার,
নায়ে জাহান রা পুর না করদে আজ শাক্কর।।

In our woe the days have become untimely:
our days travel hand in hand with burning griefs.

অর্থ:
দু:খ-কষ্ট আমার দিনগুলোকে বোঝা বানিয়ে দিয়েছে। তাই দিন তো কেটে যায় কিন্তু তা অগ্নিশিখার মতো জ্বালায়।

[টিকা: মসনবীতে মানবদেহকে রূপক অর্থে বাঁশি হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।]

(চলবে…)

…………………………………………..
মসনবী শরীফ : অনু: এ বি এম আবদুল মান্নান; মুমতাজুল মোহদ্দেসীন, কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাসা।
মসনবী শরীফ : অনু: অধ্যক্ষ শামছুল হক সাহেব, সোলেমানিয়া বুক হাউস।
মসনবী শরীফ : অনু: মাওলানা আহসান হাবিব (শাওন), সালমা বুক ডিপো।
The Masnavi, by Rumi, tr. by E.H. Whinfield.
Jalālauddīna Rūmī kr̥ta Masanavī, Hindi by Reynold Alleyne Nicholson.
Masnavi Rumi with Urdu by Qazi Sajjad.

নির্মাতা
ভবঘুরে কথা'র নির্মাতা

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!