খাজা মইনুদ্দিন চিশতি

মঈনুদ্দীন চিশতীর গুরুভক্তি

একদিন খাজা মঈনুদ্দীন চিশতী স্বপ্নে দেখলেন, তার প্রিয় মুর্শিদ মাওলা ওসমান হারুনি ছাতা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন এবং তার পাশে ৭০০ জন ভক্ত রয়েছে। হঠাৎ খাজা মঈনুদ্দীন চিশতীর মনে প্রশ্ন হলো, এত জন ভক্ত আর ছাতা হলো একটা। তাহলে কার জায়গা হবে ছাতার নীচে?

পরদিন প্রিয় মুর্শিদ মাওলা ওসমান হারুনিকে খাজা মঈনুদ্দীন চিশতী জিজ্ঞাসা করলেন, আমি স্বপ্নে দেখলাম একটা ছাতা নিয়ে আপনি দাঁড়িয়ে আছেন। আপনার ছাতার নীচে কে জায়গা পাবে বাবা?

মাওলা ওসমান হারুনি কোন উত্তর না দিয়ে সবাইকে বললেন, ‘আমি সফরে যাব’। এই বলে তিনি সবাইকে নিয়ে সফরে রওনা হলেন। যেতে যেতে অনেক পথ পাড়ি দেওয়ার পর একটা পতিতালয় দেখে ওসমান হারুনি দাঁড়ালেন। খাজা মঈনুদ্দীন সহ অন্যান্য সবাইকে বললেন, তোমরা দাঁড়াও আমি আসছি।

এই বলে ওসমান হারুনি পতিতালয়ের বেতরে গেলেন। এবং ৩ ঘণ্টা পর গায়ে মদ ঢেলে মাতালের মত বের হলেন। এসে দেখলেন ৪০০জন ভক্ত পীরকে পতিতালয়ে ডুকতে দেখেই পিছন থেকে চলে গেছে।

বাকি রইল ৩০০ জন,।এবার কিছু দূর যাওয়ার পর দেখলেন হিন্দু উপাশনালয়। সাবাইকে রেখে ওসমান হারুনি গেলেন উপাশনালয়ে। এরপর ২ ঘণ্টা পরে সেখানে থেকে বের হয়ে এসে দেখলেন, খাজা মঈনুদ্দীন ছাড়া আর কেউ নেই।

এরপর ওসমান হারুনি বললেন, হে মঈনুদ্দীন, এবার তোমার সেই দিনের স্বপ্নের উত্তর পেয়েছ? আমার ছাতার নিচে কার জায়গা হবে?

তুমি আর আমি ছাড়া ছাতার নীচে আর কেউ নেই!!!

গুরুর উপর সকল অবস্থায় ধৈর্য ধারণই শিষ্যের ঈমান।

……………………………………
আরো পড়ুন-
সুলতানুল হিন্দ খাজা গরীবে নেওয়াজ
খাজা গরীবে নেওয়াজ মইনুদ্দীন চিশতী

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!