মা মনসা পূজা

মনসার সহিত চাঁদের বিবাদ

মনসার সহিত চাঁদের বিবাদ
(পয়ার)

অত:পর মনসাদেবী ভাবিলেন সার।
চম্পক নগরে হবে পূজার প্রচার।।
জগাই জেলে করে তথায় বসতি।
নিছনী তাহার পত্নী পতিব্রতা সতী।।
তাঁর করে (হাতে) পূজা নিতে করিয়া মন ন।
যুগ্মবারা তারে করে কৌশলে অর্পণ।।
গ্রামেতে স্থাপিয়া বারা অতি সমাদরে।
নিছনী মনসা পূজে ষোড়শোপচারে।।
মনসার বরে তার ফিরিল কপাল।
হইল বিপুল ধন সুন্দর মহাল।।

সংবাদ পাইয়া সবে চম্পক নগরে।
সমাদরে মনসা পূজা করে ঘরে ঘরে।।
মনসার বরে সবে সুখি সে নগরে।
তাদের ভক্তিতে খুশি মনসা অন্তরে।।
সেই গ্রামে বাস করে চাঁদ সদাগর।
গন্ধবেণে জাতি সদা পূজেন শঙ্কর।।
সনকা তাহার পত্নী পিতব্রতী সতি।
কি কর তাহার রূপ যেন স্বয়ং রতি।।
মনসার প্রভাব যখন সনকা শুনিল।
মনসা পূজিতে মনে ভক্তি উপজিল।।

মনোহর স্থানে এক পুরীর ভিতর।
দুই বারা বানাইল পরম সুন্দর।।
বারা দেখি সুখি হয়ে সনকা সাদরে।
মনসার পূজা করে নানা উপচারে।।
এ সংবাদ পেয়ে চাঁদ হয়ে ক্রোধান্বিত।
হেতাল (গদা) লইয়া হাতে তথা উপনীত।।
চেঙামুড়ি কাণি পূজ কাহার আদেশে।।
সনকা চাঁদেরে বলে দেখ নয়ন ভরে।
চম্পক নগরে সুখি কিসে সর্ব্ব নরে।।

মনসাদেবীকে পূজে যত সব লোক।
ধন-ধন্যে পরিপূর্ণ নাই কোন শোক।।
চাঁদ বলে মোরা পূজি সর্বদা শঙ্করে।
কিসের অভাব আছে মোদের সংসারে।।
আর না করিও কোন কথার উত্তর।
শীঘ্রগতি চলে যাও আপনার ঘর।।
অতীব দু:খিত হয়ে সনকা তখন।
বিষাদে চলে যায় আপন ভবন।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!