হরিচাঁদ গুরুচাঁদ মতুয়া

বিধবাবিবাহের প্রচলন ও গুরুচাঁদ ঠাকুর

-জগদীশচন্দ্র রায়

ইতিহাসের পাতায় জানা যায়, বঙ্গপ্রদেশে ১৮৫৬ সালে বিধবা বিবাহের প্রচলন করেন ঈশ্বরচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায় (বিদ্যাসাগর)। প্রকৃত অর্থে ঈশ্বরচন্দ্রের বিধবাবিবাহ ছিল উচ্চবর্ণীয় সমাজের মধ্যে সীমাবদ্ধ। অপরপক্ষে নিম্নবর্ণীয় সমাজে বিধবা বিবাহের ক্ষেত্রে গুরুচাঁদ ঠাকুর তথা মতুয়া ধর্ম-দর্শনের ভূমিকা সব থেকে বেশি।

বাংলায় ১৯১০-১৯৩৬ সাল- এই সময়কালে নম:জাতির মধ্যে ব্যাপক হারে বিধবাবিবাহ সম্পন্ন হয়। সুতরাং বিধবাবিবাহের ব্যাপক প্রচলনের প্রকৃত জনক হচ্ছেন গুরুচাঁদ ঠাকুর।

বৈদিক ব্রাহ্মণ্য ধর্মের গোঁড়ামির ফলে প্রচলিত হিন্দু ধর্মে বিধবা বিবাহ ছিল জঘন্য অপরাধ। অথচ তৎকালীন অনেক ব্রাহ্মণ, জমিদার ও বিত্তশালী সমাজ, সুন্দরী বিধবা রমণীদের অসহায়তার সুযোগ নিয়ে ব্যাভিচারে লিপ্ত হতো। উনিশ শতকে হিন্দু বিধবা রমণীদের অসহায়তার সুযোগ নিয়ে ব্যভিচারে লিপ্ত হতো।

এর ফলে গুরুচাঁদ ঠাকুরের বিধবাবিবাহের প্রচলনকে পূর্ব ব্রাহ্মণ, কায়স্থ, ঘোষ, মাহিস্য, কাপালি প্রভৃতি সম্প্রদায়ও বিরোধিতার গোঁড়ামি ছেড়ে নিজধর্ম রক্ষা করার জন্য ধীরে ধীরে বিধবাবিবাহ দেওয়া শুরু করে। অতএব সার্বিক বিচারে বাংলায় বিধবাবিবাহের প্রচলনের দূরদর্শী জ্ঞানপুরুষ হচ্ছেন গুরুচাঁদ ঠাকুর।

উনিশ শতকে হিন্দু বিধবা রমণীদের অবস্থা ছিল ভয়ানক হৃদয়বিদারক। তখন বাংলার বিভিন্ন এলাকার প্রচলিত হিন্দু ও মুসলমান সম্প্রদায়ের পাশাপাশি বসবাস ছিল। হিন্দু বিধবা রমণীগণ হিন্দু সমাজের অত্যাচার থেকে মুক্তি পেতে ধর্মান্তরিত হয়ে মুসলমান ঘরে চলে যেতে থাকে।

মুসলমান সমাজ সানন্দে হিন্দু বিধবা রমণীদের বিবাহ করে তাদের সমাজে স্থান দিত। এই ঘটনা বেশি ঘটত উচ্চবর্ণীয় সম্প্রদায়ের মধ্যে।

এক্ষেত্রে গুরুচাঁদ ঠাকুর বিধবাবিবাহের প্রচলন করে তাদেরকে যেমন সম্মানের সঙ্গে বেঁচে থাকার ব্যবস্থা করে নম:জাতির পরিবার ও সমাজকে শৃঙ্খলাবদ্ধ করেছেন; তেমনি মতুয়াদের স্বধর্ম ও সংস্কৃতিকেও রক্ষা করেছেন।

এর ফলে গুরুচাঁদ ঠাকুরের বিধবাবিবাহের প্রচলনকে পূর্ব ব্রাহ্মণ, কায়স্থ, ঘোষ, মাহিস্য, কাপালি প্রভৃতি সম্প্রদায়ও বিরোধিতার গোঁড়ামি ছেড়ে নিজধর্ম রক্ষা করার জন্য ধীরে ধীরে বিধবাবিবাহ দেওয়া শুরু করে। অতএব সার্বিক বিচারে বাংলায় বিধবাবিবাহের প্রচলনের দূরদর্শী জ্ঞানপুরুষ হচ্ছেন গুরুচাঁদ ঠাকুর।

……………………………
গুরুচাঁদ ঠাকুরের সমাজসংস্কার ও মুক্তির দিশা

……………………………….
ভাববাদ-আধ্যাত্মবাদ-সাধুগুরু নিয়ে লিখুন ভবঘুরেকথা.কম-এ
লেখা পাঠিয়ে দিন- [email protected]
……………………………….

……………………………
আরো পড়ুন:
গুরুচাঁদের বারো গোঁসাই: এক
গুরুচাঁদের বারো গোঁসাই: দুই
গুরুচাঁদের বারো গোঁসাই: তিন

শ্রীশ্রী গুরুচাঁদ ঠাকুর ও নবযুগের যাত্রা: এক
শ্রীশ্রী গুরুচাঁদ ঠাকুর ও নবযুগের যাত্রা: দুই
শ্রীশ্রী গুরুচাঁদ ঠাকুর ও নবযুগের যাত্রা: তিন

তারকচাঁদের চরিত্রসুধা
অশ্বিনী চরিত্রসুধা
গুরুচাঁদ চরিত
মহান ধর্মগুরু হরিচাঁদ নিয়ে প্রাথমিক পাঠ
হরিলীলামৃত
তিনকড়ি মিয়া গোস্বামী
শ্রী ব্রজমোহন ঠাকুর

……………………………
আরো পড়ুন:

মতুয়া ধর্ম দর্শনের সারমর্ম
মতুয়া মতাদর্শে বিবাহ ও শ্রদ্ধানুষ্ঠান
মতুয়াদের ভগবান কে?
নম:শূদ্রদের পূর্ব পরিচয়: এক
নম:শূদ্রদের পূর্ব পরিচয়: দুই
মতুয়া মতাদর্শে সামাজিক ক্রিয়া

বিধবাবিবাহ প্রচলন ও বর্ণবাদীদের গাত্রদাহ
ঈশ্বরের ব্যাখ্যা ও গুরুচাঁদ ঠাকুর
বিধবাবিবাহের প্রচলন ও গুরুচাঁদ ঠাকুর

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!