বাউল গান সাধু ফকির বয়াতী

না হলে ভাবের ভাবী

না হলে ভাবের ভাবী,
কোথায় পাবি,
ভাবের মানুষ যায় কি ধরা।
ও সে করেছে নিগমে থানা,
বৃথা বাইরে হানা,
যায় না জানা সাধু কি চোরা।।

ধরতে সেই মানুষ-রতন
কত মহাজন
ফাঁদ পেতে রয়েছে তারা।
গোলকনাথ গোলক ছেড়ে
তাহার তরে
বুলছে হ’য়ে ক্ষ্যাপার পারা।।

ধরবি কি সেই রসের কল,
সহজে পাগল,
অনুরাগ যার অঙ্গে পোরা।
মনেতে নিষ্ঠা হ’লে
বস্তু মিলে,
তর্কেতে না পায় কিনারা।।

বলছেন তাই শ্যামানন্দ,
ভজন সিদ্ধ
‘আমি’কে চিনেছে যারা।
‘আমি’কে চিনে না যে জন,
করয়ে ভজন,
যেমন অজ্ঞান গাভীর পারা।।

……………………
অধ্যাপক উপেন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের ‘বাংলার বাউল ও বাউল গান’ গ্রন্থ থেকে এই পদটি সংগৃহিত। ১৩৬৪ বঙ্গাব্দে প্রথম প্রকাশিত এই গ্রন্থের বানান অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। লেখকের এই অস্বাধারণ সংগ্রহের জন্য তার প্রতি ভবঘুরেকথা.কম-এর অশেষ কৃতজ্ঞতা।

এই পদটি সংগ্রহ সম্পর্কে অধ্যাপক উপেন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য মহাশয় লিখেছেন- এই পদটি সংগ্রহ সম্পর্কে অধ্যাপক উপেন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য মহাশয় লিখেছেন- বর্ধমান জেলার বেতালবন গ্রামের বাউল সমাবেশ হইতে বিশেষভাবে সংগৃহিত-

…………………….
আপনার গুরুবাড়ির সাধুসঙ্গ, আখড়া, আশ্রম, দরবার শরীফ, অসাম্প্রদায়িক ওরশের তথ্য প্রদান করে এই দিনপঞ্জিকে আরো সমৃদ্ধ করুন-
voboghurekotha@gmail.com

……………………………….
ভাববাদ-আধ্যাত্মবাদ-সাধুগুরু নিয়ে লিখুন ভবঘুরেকথা.কম-এ
লেখা পাঠিয়ে দিন- voboghurekotha@gmail.com
……………………………….

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!