ফকির লালন শাহ্

ফকির লালনের বাণী : সাধকদেশ :: বার

ফকির লালনের বাণী : সাধকদেশ

৫৫১.
আদ্যরূপ পুরা নফস জারি
সামাল হলে হয় ফকিরী।

৫৫২.
আলেক সাঁই আল্লাজী মিশে।
ফানা ফিল্লায় মোরা কেবা
খুজে নাই পায় দিশে।

৫৫৩.
যার ধড়ে বসত করি
নিরাকার কি ডিম্বুয়ারি।

৫৫৪.
আমি ওই তল্লাশে ঘুরে মরি
আছেন তিনি কোন ঘরে বসে।

৫৫৫.
মক্কার মরজেম যারে বলে
সেকি আহদে আহম্মদ মেলে।

৫৫৬.
মুসাহেদায় কপাট পলে
থাকে গুরুর আাবার পাশে।

৫৫৭.
যেমন লোহাতে চমক ঠেকালে
চার রং যায় অমনি গলে।

৫৫৮.
শিক্ষাগুরুর দয়া হলে
দেখা দেয় সে অনাসে।

৫৫৯.
লালেতে হয় মতির জন্ম
পানিতে হয় মাটির ধর্ম।

৫৬০.
লালন বলে ব্রহ্মাণ্ডের জন্ম
করলে না তার উদেশ্যে।

৫৬১.
জগতের মূল কোথা হতে হয়।
আমি একদিন ও চিনলাম না তাই।

৫৬২.
কোথায় আল্লাহর বসতি
কোথায় রসুলের স্থিতি।

৫৬৩.
পবন পানির কোথায় গতি
কিসে তা জানা যায়।

৫৬৪.
কোন আসনে আল্লাহ আছে
কোন আসনে রসুল বসে।

৫৬৫.
কোন হিল্লোলে মীন মিশে
কোন রঙে রঙ ধরায়।

৫৬৬.
দালে মীম বসালে যা হয়
সেই কি জগতে মূল কয়।

৫৬৭.
কোথায় বা আরশ কোথায় বা মীম
এ কথা কারে সুধাই।

৫৬৮.
আল্লাহ নবী যারে বলে
দেখতে পায় মন এক হলে।

৫৬৯.
মরে ডুবতে পারলে হয়।
মরে যদি ভেসে ওঠে সে মরার ফল কি তায়।

৫৭০.
মরা তো অনেক মরে ডোবা কঠিন হয় গভীরে।
মৃত্তিকাহীন সরোবরে থাকলে স্বরূপ রূপাশ্রয়।

৫৭১.
মরণের আগেতে মরা প্রেমডুবারু হয়ে তারা।
সে জানতে পায় অধর ধরা অঠাঁইয়ে দিয়ে ঠাঁই।

৫৭২.
ডোবে না মন ওঠে ভেসে ডুবতে চায় গলায় কলসি বেঁধে।
অধীন লালন বলছে কেঁদে না জানি সাঁই কোন ঘাটে লাগায়।

৫৭৩.
শুনি মরার আগে ম’লে
শমনজ্বালা ঘুঁচে যায়।

৫৭৪.
জান গা কেমন মরার
কি রুপ জানাজা দেয়।

৫৭৫.
জ্যান্তে মারিয়ে সুজন দিয়ে
খেলকা তাজ তহবন বেশ পরায়।

৫৭৬.
রুহু চাপা হয় কিসে
তাঁর গোর হয় কোথায়।

৫৭৭.
মরার শৃঙ্গার ধরে উচিত
জানাজা করে যে যথায়।

৫৭৮.
সেই মরা আবার মরিলে
জানাজা হয় কোথায়।

৫৭৯.
কথায় হয় না সে রূপ মরা
তাঁদের করন বেদ ছাড়া সর্বদাই।

৫৮০.
জীব ম’লে যায় জীবান্তরে
জীবের গতি মুক্তি রয় ভক্তির দ্বারে।

৫৮১.
জীবের কর্ম বন্ধন না হয় খণ্ডন
প্রতিবন্ধন কর্মের ফেরে।

৫৮২.
ক্ষিতি-অপ-তেজ-মরুত-ব্যোম
এরা দোষী নয় দোষী আদম।

৫৮৩.
বেহুঁশে খেয়ে গন্ধম
তাইতে এলো ভাবনগরে।

৫৮৪.
আত্মা আর পরম-আত্মা
ত্রিসংসারে জগৎকর্তা।

৫৮৫.
ভুলে আত্মা জগৎকর্তা
লক্ষ যোনী ঘুরে মরে।

৫৮৬.
গুরু ধরে জ্যান্তে মরে
বসাও গুরুর হৃদমাঝারে।

৫৮৭.
সিরাজ সাঁই এর চরণ ভুলে
লালন মিছে কেন বেড়াও ঘুরে।

৫৮৮.
জীব মরে জীব যায় কোন শহরে।
জীবের গতি মুক্তি কে করে।

৫৮৯.
রাম,নারায়ন, গৌর হরি
ঈশ্বর যদি গন‍্য করি।

৫৯০.
তারাও সব গর্ভধারি
জীবের ভার দিই কারে।

৫৯১.
যারে তারে ঈশ্বর বলা
বুদ্ধি নাই তার অর্ধ তোলা।

৫৯২.
ঈশ্বরের নাই যমের জ্বালা
তাই ভাবি মনের দ্বারে।

৫৯৩.
ত্রিজগতের মূলাধার সাঁই
জন্ম মৃত্যু তার কিছুই নাই।

৫৯৪.
লালন বলে জানে সবাই
তবু ঘোর বাঁধায় ঘুরে।

৫৯৫.
আকারে ভজন সাকারে সাধন তায়।
আকার সাকার অভেদ রূপ জানতে হয়।

৫৯৬.
ভজনের মূল নয়-আকার
গুরু-শিষ্য হয় প্রচার।

৫৯৭.
সাকার রূপেতে আকারে নির্ণয়
আকার ছাড়া সাকার রূপ নাহি রয়।

৫৯৮.
পুরুষ প্রকৃতি আকার
যুগল ভজন প্রচার।

৫৯৯.
নায়ক-নায়িকার যোগমাহিত্ম
যোগের সাধন জানতে হয়।

৬০০.
অযোনী সহজ রূপ সংস্কার
স্বরূপে দুইরূপ হয় নিহার।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!