শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারী

১.
ঈশ্বরই একমাত্র সদগুরু।

২.
উচ্ছৃঙ্খলতা দারিদ্র্যের বাহন।

৩.
আমার চরণ ধরিস না, আচরণ ধর।

৪.
যত গুপ্ত তত পোক্ত, যত ব্যক্ত তত ত্যক্ত।

৫.
সে গুরুর প্রতি নির্ভরশীল ও শ্রদ্ধাশীল হও।

৬.
যা মনে আসে তাই করবি, কিন্তু বিচার করবি।

৭.
ক্রোধ ভালো, কিন্তু ক্রোধান্ধ হওয়া ভালো নয়।

৮.
যতক্ষণ তোর অসন্তোষ, ততক্ষণই তোর দারিদ্র।

৯.
যোগযুক্ত হও, শ্বাস ও প্রশ্বাসে জপই হলো যোগ।

১০.
অন্ধ সমাজ। চোখ থাকতেও অন্ধের মতো চলতে।

১১.
আমার জন্ম নেওয়াটা সম্পূর্ণ আমার ইচ্ছাধীন জানবি।

১২.
তোদের মধ্যে সত্যরূপে আমি আছি, চিরকাল থাকবো।

১৩.
যে কর্ম করলে তাপ লাগে তাই পাপ। অর্থাৎ বাসনাই পাপ।

১৪.
শোন! মন যা চায় -তাই করবি; কিন্তু বিচার করে নিবি আগে।

১৫.
আমার দান ছড়ানো পড়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে পারলেই হলো।

১৬.
গরজ করবি, আহাম্মক হবি না। ক্রোধ করবি, ক্রোধান্ধ হবি না।

১৭.
মানসিক দু:খ, সন্তোষের অভাব, মনের ক্ষোভই অসন্তোষের ফল।

১৮.
সর্বদায় আনন্দে থাক। আনন্দে থাকাই শ্রীভগবানকে নিয়ে থাকা।

১৯.
দু:খ দরিদ্রতায় ভরা সমাজের দু:খ করার জন্য সর্বদা চেষ্টা করবি।

২০.
শাসন করতেও পারি, আবার ধূলো ঝেড়ে বুকে তুলে নিতেও আমি।

২১.
যে কারণে মোহ আসে, তা যদি জানা থাকে, আসতে না দিলেই হয়।

২২.
গুরু কে? গুরু স্বয়ং ভগবান। স্বয়ং ভগবান ছাড়া কেউ গুরু হতে পারে না।

২৩.
ওরে তোরা কি ভাবিস আমি চাই তোরা দু:খ পাস, রোগ যন্ত্রণা ভোগ করিস?

২৪.
যে যখন আপদে-বিপদে আমার স্মরণ নেবে, সে ক্ষণেই আমার কৃপালাভ করবে।

২৫.
যে তার মন-প্রাণ আমাকে দিতে পেরেছে, আমি তারই হয়ে গেছি, তার কাছে ঋণী।

২৬.
বিষয়, ভোগ-বাসনাই দুঃখের বা তাপের কারণ। বাসনা নাই যার, তাপও নাই তার।

২৭.
আমার উপর আস্থা এবং বিশ্বাস যতই বাড়বে, ততই তোদের সর্ব অভীষ্ট সফল হবে।

২৮.
তোরা আমার ছাড়া নস, এই ভাবটি ভুলিস না। আমি তোদের মধ্যেই আছি থাকবো।

২৯.
ওরে, কোথায় যাব বল। পূর্ণ থেকে পূর্ণ গেলে যে পূর্ণই অবশিষ্ট থাকে। তিনি যে পূর্ণ।

৩০.
রণে বনে জলে জঙ্গলে যখনই বিপদে পরবে আমাকে স্মরণ করো আমিই রক্ষা করব।

নির্মাতা
ভবঘুরে কথা'র নির্মাতা

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!