সব থেকে বড় হৃদয়

সব থেকে বড় হৃদয়

-সত্যানন্দ মহারাজ

তিন পায়ে যিনি এই বিশ্ব-মেপে নেন
সেই শ্রী হরি এসে বসুক হৃদয়ে!
এমন প্রার্থনা যাঁর সে মহান হৃদয়
অজর-অমর আর চীর অক্ষয়!!

বামন অবতারের সময় ভগবান শ্রী হরি দৈত্য-কূল-অধিপতি বলি রাজার সর্বস্য হরণ করার সময় তিন পায়ে ত্রি-লোক মেপে নিয়েছিলেন।

কথা ছিল- তিন পা ভূমি রাজা বলি দান করবেন বামন বেশধারী ব্রাহ্মণকে। সেই কথা মত ভগবান সমস্ত বিশ্ব-ব্রহ্মাণ্ড তিন পা দিয়ে অধিকার করে নেন। তখন থেকেই দাতা হিসাবে দৈত্যরাজ বলিও খ্যাতি লাভ করে ভক্ত হৃদয়ে।

তাই যিনি এই বিশ্ব-ব্রহ্মণ্ডের অধিপতি তিনি ধর্ম স্থাপনের জন্যও সাধু, ভক্তদের ত্রাণ করবার জন্য বারে বারে এই ধারায় অবতীর্ণ হন।

কখনো তিনি শঙ্খ-চক্রাধারী কৃষ্ণরূপে, আবার কখনো তিনি দশ প্রহরণ-ধারিণী দূর্গারূপে, কখনো তিনি ত্রিশূলধারী ভোলানাথ শিব রূপে, আবার কখনো তিনি খগ্ড়-মুণ্ড-ধারিণী কালী রূপে।

সবই তাঁর লীলা। তিনিই সব। একাধারে বিশ্ব পিতা জগন্নাথ, আবার অন্যরূপে জগজ্জননী জগদ্ধাত্রী, তিনিই আবার সদগুরু রূপে সকল জীবের উদ্ধারক।

শাস্ত্রে বলা হয়েছে- বিশ্ব-ব্রহ্মাণ্ডে সব থেকে বড় হৃদয় কার? আমরা জানি বিশ্ব-ব্রহ্মাণ্ডের যিনি অধীশ্বর সেই বিশ্ব পিতা জগন্নাথের থেকে বড় হৃদয় আর কার হতে পারে?

তাছাড়া তিনিই তো এই জগতের সকল কিছুর সৃষ্টি-স্থিতি-প্রলয় কর্তা। কিন্তু না সব থেকে বড় হৃদয়ে বলা হয়েছে ভক্তের হৃদয়কে।

কারণ যিনি এই বিশ্বকে ধারণ করে আছেন- সেই বিশ্বাধার ভগবান আবার ভক্তের হৃদয়ে বাস করেন। তাই ভক্তের হৃদয়ই বিশ্বের শ্রেষ্ঠ স্থান।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!