কনফুসিয়াস

১.
তুমি যেখানেই যাও, মন থেকে যাও।

২.
তুমি কিছু না শিখে, একটি বই খুলতে পারবে না।

৩.
অন্যায় কে দেখা আর শোনা হলো অন্যায়ের শুরু।

৪.
খুঁত যুক্ত হীরা, যে কোন নিখুঁত পাথরের থেকে উত্তম।

৫.
একজন শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি, কথায় কম আর কাজে বেশি হয়।

৬.
ন্যায় আর সত্য হল নৈতিকতার জন্য সবচেয়ে জরুরী।

৭.
যখন রাগ বাড়তে থাকবে, তখন এর পরিণামের কথা ভেবো।

৮.
যে নিজের উপর বিজয় প্রাপ্ত হয়, সেই হল সব থেকে বড় যোদ্ধা।

৯.
সবচেয়ে বড় দোষ হলো, দোষ হওয়ার সত্ত্বেও তাকে ঠিক না করা।

১০.
তুমি নিজেকে সম্মান করো, তাহলেই অন্যেরা তোমায় সন্মান করবে।

১১.
সবকিছুর মধ্যেই সৌন্দর্যতা আছে, কিন্তু সবাই এটি দেখতে পায় না।

১২.
ধৈর্যের দ্বারা অনেক বড় থেকে বড় সমস্যাকেও পরাস্ত করা যেতে পারে।

১৩.
সত্যিটা জানার পরও সেটিকে না করা সব থেকে বড় একটি কাপুরুষতা।

১৪.
সত্যতা এবং সৎ কাজ সর্বদা উচ্চ নৈতিকতার আঁধার হিসাবে কাজ করে।

১৫.
মহত্ত্ব না পরার মধ্যে নেই, বরং প্রতিবার পরে উঠে দাঁড়ানোর মধ্যে আছে।

১৬.
যেটা আপনি নিজে পছন্দ করেন না, সেটা অপরের উপর চাপিয়ে দিবেন না।

১৭.
সফলতা আগে থেকে তৈরি হওয়ার উপর নির্ভর করে, না হলে ব্যর্থতা নিশ্চিত।

১৮.
এটা জানার সত্ত্বেও যে সঠিক কি, সেটা না করাই হলো সব থেকে বড় ভীরুতা।

১৯.
একটি সিংহের থেকে বেশি একটি উত্পীড়নকর সরকার কে ভয় পাওয়া উচিত।

২০.
আমি শুনি আর ভুলে যাই, আমি দেখি আর মনে রাখি, আমি করি আর বুঝে যাই।

২১.
বাস্তবে আমাদের জীবন খুবই সরল, কিন্তু আমরাই তাকে জটিল করায় মত্ত্ব থাকি।

২২.
বাস্তবিক শিক্ষা হলো সেটাই যার দ্বারা কোন অজ্ঞতার সীমা কে জানতে পারা যায়।

২৩.
যদি নিজের উৎকৃষ্ট ভবিষ্যতের নির্মাণ করতে হয়, তাহলে অতীতের অধ্যয়ন করো।

২৪.
বুদ্ধি, করুণা আর সাহস হলো মানুষের জন্য তিনটি সার্বভৌমিক স্বীকৃত নৈতিক গুণ।

২৫.
এটা বিষয় না যে আপনি কতটা ধীরে চলছেন, যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি থেমে না যাচ্ছেন।

২৬.
প্রতিশোধের রথের উপর ভ্রমণ শুরু করার আগে সর্বপ্রথম নিজের জন্য কবর খুঁড়ে রাখুন।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!