সাধুসঙ্গ

বাউল/ফকির : পর্ব-৪

-দ্বীনো দাস

এই প্রশ্নের উত্তর সুধীর চক্রবর্তীর সবল যুক্তিতে নেতিবাচক। তিনি লিখেছেন-

মূলত অপ্রচারিত থাকার জন্য এবং উৎসুক মরমী জনের অভাবে লালনগীতি বা বাণী আমাদের পণ্ডিত ও গবেষক সমাজে এমনকি উচ্চশিক্ষার পাঠক্রমে আজও গৃহিত হয়নি। যা অনেক আগেই হওয়া উচিত ছিল।

অথচ আঠারো-উনিশ শতকের মধ্যবিন্দুতে বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস যখন ডেকাডেন্ট, ভারতচন্দ্রের অলংকারাঢ্য নাগরিকতার রক্তাল্পতা, কবিওয়ালাদের নিম্নরুচি যখন গ্রাস করেছে দিশাহীন প্রমোদপরায়ণ সামাজিকদের, তখন মধ্যবঙ্গের উত্তরবঙ্গের প্রত্যন্ত জনপদে গড়ে উঠেছে উদার মানবতার অসম্প্রদায়ী বিশ্বাসের উচ্চারণ লালন ফকির।

আজকাল লালন ফকিরের গানের ইসলামি গানের ইংরাজি ফরাসি অনুবাদ করা হচ্ছে। লালনের ফকিরের উপর পিএইচডি করানো হচ্ছে। এসব অনুবাদ ভাল হয় না, ঠিক হয় না। বাউল/ফকিরকে এবং বাউল/ ফকিরের গানকে বোঝা বিলাতি Sociolinguist কিংবা Ehnomusician পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।

লালন ফকির সেই ব্রাত্য মন্ত্রবর্জিত মানুষগুলোর বিশ্বাসের শীর্ষে দাঁড়িয়ে তার গভীর, রহস্যময় ও উদ্বেল বাণী বা ভাব গান রচনা করেছিলেন।

গুহ্যধর্মের এবং ধর্মীয় গীতাবলির Secular পটভূমির বিস্তৃতি বিবরণ তার গুরুত্ব অসামান্য, গভীর প্রভাব সত্ত্বেও সকলেই তো আর ঠিক পথে চলতে পারছে না।

আজকাল লালন ফকিরের গানের ইসলামি গানের ইংরাজি ফরাসি অনুবাদ করা হচ্ছে। লালনের ফকিরের উপর পিএইচডি করানো হচ্ছে। এসব অনুবাদ ভাল হয় না, ঠিক হয় না। বাউল/ফকিরকে এবং বাউল/ ফকিরের গানকে বোঝা বিলাতি Sociolinguist কিংবা Ehnomusician পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।

প্রধানত এই কারলে যে, এ সব গানের পরিভাষা, Motivated language বোঝা এবং আধুনিক ইওরোপীয় ভাষার অনুবাদ করা বড় কঠিন, বড়ই কঠিন।।

এবার দেখা যাক ফকির লালন সাঁইজি কি বলছেন এই সার্বিক বিষয়ের উপর-

আরবিতে বলে আল্লা
ফারসিতে কয় খোদাতালা,
গড বলেছে যীশুর চেলা
ভিন্ন দেশে ভিন্ন ভেবে।।

আল্লা হরি ভজন পূজন
মানুষের সকল সৃজন,
অচানক অচিনাই কখন
জ্ঞান ইন্দ্রিয় না সম্ভবে।।

(এক এক দেশে ভিন্ন ভিন্ন রূপে মহামানবদের অবতর হয়। তিনারা জীব উদ্ধারিতে স্রষ্টার নাম ও বাণী এই ধরায় দিতে থাকেন ভিন্ন ভিন্ন ভাষায়। সাঁইজি বলতে চেয়েছেন আপন মাতৃ-ভাষা বাদ দিয়ে অন্য অজানা ভাষায় জ্ঞান অর্জন করা বা স্রষ্টাকে জানা, নিজেকে চেনা না সম্ভবে।)।

সাঁইজি এই বাণীর শেষে কি বললেন দেখি-

মনের ভাব প্রকাশিতে
ভাষার সৃষ্টি এই জগতে,
আচানক অধরকে চিনতে
ভাষা বাক্য নাহি পাবে।।

আপনার আপনি হলে ফানা
দেখা দেবেন সাঁই রব্বানা,
সিরাজ সাঁই কয় লালন কানা
স্বরূপে রূপ দেখ সংক্ষেপে।।

(চলবে…)

………………..
আরো পড়ুন:
বাউল/ফকির : পর্ব-১
বাউল/ফকির : পর্ব-২
বাউল/ফকির : পর্ব-৩
বাউল/ফকির : পর্ব-৪
বাউল/ফকির : পর্ব-৫

……………………………….
ভাববাদ-আধ্যাত্মবাদ-সাধুগুরু নিয়ে লিখুন ভবঘুরেকথা.কম-এ
লেখা পাঠিয়ে দিন- [email protected]
……………………………….

………..
বি.দ্র.
আমার এই লেখা কিছু ইতিহাস থেকে নেওয়া কিছু সংগৃহীত, কিছু সৎসঙ্গ করে সাধুগুরুদের কাছ থেকে নেওয়া ও আমার মুর্শিদ কেবলা ফকির দুর্লভ সাঁইজি হতে জ্ঞান প্রাপ্ত। কিছু নিজের ছোট ছোট ভাব থেকে লেখা। লেখায় অনেক ভুল ত্রুটি থাকতে পারে তাই ভুল ত্রুটি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।। আলেক সাঁই। জয়গুরু।।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!