রওশন ফকিরের গুরু বার্ষিকী সাধুসঙ্গ

রওশন ফকিরের গুরু বার্ষিকী সাধুসঙ্গ

সুধি,
১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রিস্টাব্দ মোতাবেক ৬ ও ৭ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ রোজ শুক্র ও শনিবার দিব্যধাম আশ্রমের গুরু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে ‘রওশন ফকিরের গুরু বার্ষিকী সাধুসঙ্গ‘ অনুষ্ঠিত হবে।

এই শুভ সাধুসঙ্গে দেশবরেণ্য সাধুগুরুগণ ও বাউল শিল্পীরা উপস্থিতি থাকবেন। আপনারা সকলে আমন্ত্রিত।

বিশ্বব্যাপী করোনার মহামারীর জন্য সকল স্বাস্থবিধি মেনে সাধুসঙ্গ পরিচালনা করা হবে।

বিনয়াবনত
দিব্যধামের গুরুজি
রওশন শাহ ফকির
মা বেলো ফকিরানী
ঘোড়ামারা, কুষ্টিয়া, বাংলাদেশ।

সময়:
অনুষ্ঠান শুরু হবে-
শুক্রবার দুপুর ৩:০০টা।
১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রিস্টাব্দ।
৬ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ।

স্থান:
দিব্যধাম আশ্রম
ঘোড়ামারা, দৌলতপুর
কুষ্টিয়া, বাংলাদেশ।

আয়োজন ও আমন্ত্রণে:
রওশন শাহ ফকির।
ও মা বেলো ফকিরানী।

প্রয়োজনে:
০১৭৭২৪২৭৭১৫

অনুষ্ঠান সূচি:
১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রিস্টাব্দ : ৬ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
রোজ শুক্রবার
দুপুর ৩:০০-৪:০০ সাধুগুরু বৈষ্ণব আগমন।
দুপুর ৪:০০-৪:৩০ আসন গ্রহণ ও অধিবাস ও ডুগির মহড়া।
বিকেল ৫:০০-৫:৩০ দীন ডাকা।
সন্ধ্যা ৫:৩০-৭:০০ গুরু কর্ম।
সন্ধ্যা ৭:০০-৮:০০ সমবেত কণ্ঠে ভক্তের মিনতি ( বাদ্যযন্ত্রহীন)
সন্ধ্যা ৮:০০-৮:৩০ পঞ্চপ্রদীপ প্রজ্বলন, দীন ডাকা ও চা মুড়ি সেবা।
রাত ৮:৩০-৯:৩০ সাধুগুরুগণের দৈন্য গান পরিবেশন।
রাত ৯:৩০-১১:৩০ সাঁইজির কালাম পরিবেশন।
রাত ১১:৩০-১:৩০ অন্যান্য সাধক ও শিল্পী ভক্তদের সঙ্গীত পরিবেশন।
রাত ২:০০ টা অধিবাস সেবা।

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রিস্টাব্দ : ৭ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
রোজ শনিবার
ভোর ৫:০০ গোষ্ঠলীলা।
সকাল ৭:০০-৭:৩০ গুরু কর্ম।
সকাল ৭:৩০-৯:৩০ বাল্যসেবা।
সকাল ৯:৩০-১২:০০ সাঁইজির কালাম ও গুরু শিষ্য মিলন তত্ত্ব গান।
দুপুর ১২:০০- ১২:৩০ বিরতি।
দুপুর ৩:০০ পূর্ণ সেবা।
দুপুর ৪:০০ সাধু বৈষ্ণব বিদায়।

সংগীত পরিবেশন করবেন:
কুষ্টিয়া-মেহেরপুরেসহ দেশের
প্রবীণ সাধুগুরু ও বিশিষ্ট শিল্পীবৃন্দ

: যাতায়াত :

-ঢাকা থেকে-

বাস সার্ভিস

সরাসরি বাসে (যমুনা সেতু দিয়ে)
গাবতলী, কল্যাণপুর ও সায়দাবাদ থেকে বাসে করে কুষ্টিয়ার বাসে উঠতে হবে। নামতে হবে ভেড়ামারা বাসস্ট্যান্ডে। সেখান থেকে অটোতে করে ঘোড়ামারায় এসে যে কাউকে রওশন ফকিরের দিব্যধাম আশ্রমের কথা বললেই দেখিয়ে দিবে।

বাস (পদ্মা পারাপার)
গাবতলী থেকে পাটুরিয়া ঘাট। সেখান থেকে লঞ্চ, স্প্রীডবোর্ড বা ফেরীতে করে পদ্মা পাড়ি দিয়ে ঐপার থেকে বাসে করে কুষ্টিয়া মজমপুর গেট। ঢাকা একশত পঞ্চাশ টাকা। সেখান থেকে ভেড়ামারাগামী বাসে করে ভেড়ামারা বাসস্ট্যান্ডে নামতে হবে। সেখান থেকে অটোতে করে রওশন ফকিরের দিব্যধাম আশ্রম।

ট্রেন সার্ভিস
পাটুরিয়া দিয়ে পদ্মা পাড়ি দিয়ে দুপুর দুইটার সময় ধরতে পারেন রাজশাহী গামী ট্রেন মধুমতি এক্সপ্রেস। মধুমতি এক্সপ্রেসে করে নামতে হবে ভেড়ামারা স্টেশনে। সেখান থেকে ভ্যান বা অটোতে করে রওশন ফকিরের দিব্যধাম আশ্রম।

এছাড়া ঢাকা থেকে যেকোনো কুষ্টিয়াগামী ট্রেনে করে আসলে নামা যাবে ভেড়ামারা স্টেশনে।

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!