ব্রাহ্মসামাজ

ধর্ম্মসাধন ব্রতে দীক্ষা

ব্রাহ্ম পিতামাতা পুত্র কন্যাকে বিদ্যালয়ে পাঠাইয়া লৌকিক জ্ঞান এবং নীতি বিদ্যালয়ে অথবা বালক বালিকার উপযোগী কোন ধর্ম্ম শিক্ষালয়ে প্রেরণ করিয়া ধর্ম্ম জ্ঞান শিক্ষা দিবেন।

কিন্তু এই সকল বিদ্যালয়ে কেবল সাধারণভাবে জ্ঞান দান করা সম্ভব। বালক বালিকার ধর্ম্মজীবনের বিকাশের পক্ষে তাহা যথেষ্ট নয়।

ব্রাহ্ম পিতামাতা যত্ন করিবেন যেন পুত্র কন্যা উপযুক্ত বয়সে ঈশ্বরকে নিজ জীবনের নিয়ন্তা ও পরিচালক রূপে অনুভব করিয়া তাঁহার নিয়মিত উপাসনার জন্য ও নিজ অবস্থার উপযোগী অন্যান্য ধর্ম্মসাধন অবলম্বনের জন্য ব্যাকুল হয়।

পুত্র কন্যার অন্তরে একবার এই ব্যাকুলতা উদিত হইলেই, যাহাতে তাহা নিরন্তর প্রবল থাকে ও শিথিল হইতে না পায়, তদ্বিষয়ে যত্ন করা আবশ্যক হয়। ধর্ম্মপ্রাণ পিতামাতা এই অবষ্ঠায় সন্তানকে ধর্ম্মসাধন ব্রতে ‘দীক্ষা’ প্রদান করিতে উৎসুক হন। ন্যূনাধিক ১৬ বৎসর বয়স দীক্ষাদানের উপযুক্ত সময়।

এ অনুষ্ঠানে ব্রাহ্মাপাসনার পর দীক্ষিত ব্যক্তি নিজের উপযোগী ধর্ম্মসাধন ব্রত গ্রহণ সূচক একটি প্রতিজ্ঞা পত্র পাঠ ও তাহাতে স্বাক্ষর করিলে ভাল হয়। সমগ্র অনুষ্ঠানটি যথোপযুক্ত গাম্ভীর্য্যের সহিত সম্পন্ন হওয়া আবশ্যক।

পিতা বা মাতা বা পরিবারের সহিত ঘনিষ্ঠ অপর কোন শ্রদ্ধেয় গুরুজন এই দীক্ষা দান করিলেই ভাল হয়।

আজ হইতে আমি ঈশ্বরের ইচ্ছা বুঝিয়া চলিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হইব, আজ হইতে আমি আজীবনের জন্য ঈশ্বরের চরণে আত্মসমর্পণ করিব, আজ হইতে আমি বিশেষভাবে ঈশ্বরের হইলাম-

দীক্ষিতের অন্তরে এই ভাবগুলি জাগরিত হইরা উঠিলে এবং অপর দিকে দীক্ষাদাতা দীক্ষিতের সহিত আত্মীক যোগ রক্ষা করিবার জন্য এবং তাহার আধ্যাত্মিক জীবনের সর্ব্ববিধ সংগ্রামে ও বিকাশে তাহার সহায় হইবার জন্য প্রস্তুত হইলে এবং উভয়ের মধ্যে এই সম্বন্ধ স্থাপিত না হইলে এরূপ অনুষ্ঠান ব্যর্থ হইয়া যায়।

এ অনুষ্ঠানের প্রণালী প্রত্যেক্ষ দীক্ষার্থী ও দীক্ষাদাতার বিশেষ সম্বন্ধের উপরে এবং দীক্ষার্থীর তৎকালীন মানসিক অবস্থার ও বিকাশের উপরে নির্ভর করে। এজন্য ইহার কোনও একটি প্রণালী নির্দ্দেশ করিয়া দেওয়া সম্ভব নয়।

এ অনুষ্ঠানে ব্রাহ্মাপাসনার পর দীক্ষিত ব্যক্তি নিজের উপযোগী ধর্ম্মসাধন ব্রত গ্রহণ সূচক একটি প্রতিজ্ঞা পত্র পাঠ ও তাহাতে স্বাক্ষর করিলে ভাল হয়। সমগ্র অনুষ্ঠানটি যথোপযুক্ত গাম্ভীর্য্যের সহিত সম্পন্ন হওয়া আবশ্যক।

…………………………
ব্রাহ্মধর্ম্ম ও ব্রাহ্মসমাজ

……………………………….
ভাববাদ-আধ্যাত্মবাদ-সাধুগুরু নিয়ে লিখুন ভবঘুরেকথা.কম-এ
লেখা পাঠিয়ে দিন- voboghurekotha@gmail.com
……………………………….

………
আরও পড়ুন-
ব্রাহ্মসমাজ
সাধারণ ব্রাহ্মসমাজের সভ্য হইবার যোগ্যতা
ব্রাহ্ম ধর্মের মূল সত্য
ব্রহ্ম মন্দিরের ট্রাস্টডিড
ব্রাহ্মধর্ম্মের মূল সত্য
আত্মা
মানুষের ভ্রাতৃত্ব
উপাসনা ও প্রার্থনা
শাস্ত্র
গুরু
মধ্যবর্ত্তী ও প্রেরিত
সুখ-দু:খ : দু:খবাদ ও আনন্দবাদ
পাপ ও পুণ্য
পুনর্জ্জন্ম
পরকাল
স্বর্গ ও নরক
ধর্ম্ম রক্ষা
পরিবারে পুরুষ ও নারীর অধিকার-সাম্য
ব্রাহ্মসমাজের প্রতি ব্রাহ্মদিগের কর্ত্তব্য
সমবেত উপাসনা
পূর্ণাঙ্গ উপাসনার আদর্শ 
স্তুতি
বিবিধ অবস্থায় প্রার্থনা
নৈমিত্তিক অনুষ্ঠান
সন্তান জন্ম
ব্রাহ্মধর্ম্ম গ্রহণ ও ব্রাহ্মসমাজে প্রবেশ
ধর্ম্মসাধন ব্রতে দীক্ষা
ব্রাহ্মধর্ম্ম গ্রহণ ও ধর্ম্মদীক্ষা
বিবাহ ও তাহার আনুসঙ্গিক অনুষ্ঠান
বিবাহের বাগদান
বিবাহ
মৃত্যু ও অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া
শ্রাদ্ধ
গৃহ প্রবেশ
ব্রহ্ম ও ব্রহ্মের স্বরূপ
ব্রহ্ম ধ্যান
ব্রাহ্মধর্ম
সকলেই কি ব্রাহ্ম?
ব্রাহ্মোপসনা প্রচলন ও পদ্ধতি
আদি ব্রাহ্ম সমাজ ও “নব হিন্দু সম্প্রদায়”
পূর্ণাঙ্গ উপাসনার আদর্শ

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!