ব্রাহ্মসামাজ

পুনর্জ্জন্ম

যাঁহারা পুনর্জ্জন্মে বিশ্বাস করেন, তাঁহারা বলেন, এই শরীর পরিত্যাগ করিয়া আত্মা পুনরায় এই পৃথিবীতেই আসিবে ; আসিয়া পশুপক্ষী প্রভৃতি জীব রূপে কিংবা নব-জাত মানবশিশু রূপে, শরীরান্তর গ্রহণ পূর্ব্বক এ জন্মের পাপপুণ্যের ফল ভোগ করিবে এবং পূর্ব্বতন কোনও জন্মের ফল ভোগ করিবার জন্য আমরা এই জন্মলাভ করিয়াছি। ব্রাহ্মগণ এ প্রকার শরীরান্তর গ্রহণে বিশ্বাস করেন না।

পুন:পুন: শরীর ধারণের কোন প্রমাণ নেই। যাঁহারা পূনর্জ্জন্ম মানেন, তাঁহারা কেহই বলিতে পারেন না যে পূর্ব্বজন্মে তাঁহারা অবস্থা কিরূপ ছিল। কোন্ পাপের বা কোন্ পুণ্যের ফলে মানুষ এই জন্মলাভ করিয়াছে ও বর্ত্তমান অবস্থায় উপস্থিত হইয়াছে,

তাহা না জানিলে তাহার পাপের দণ্ড বা পুণ্যের পুরস্কার কিছুরই ভোগ হয় না। দণ্ড দিয়া সংশোধনের উদ্দেশ্যও সফল হয় না ; কারণ কোন্ অপরাধে কোন্ শাস্তি পাইতেছি, তাহা না জানিতে পারিলে সে পাপ পরিত্যাগের প্রবৃত্তি হয় না।

এরূপ দণ্ডদান ঈশ্বরের স্বরূপ বিরুদ্ধ। তিনি পরম করুণাময় ; সংশোধনের অভিপ্রায় ভিন্ন অকারণ শাস্তি দেওয়া তাঁহার প্রকৃতি নহে। অতএব পাপের শাস্তি বা পুণ্যের পুরস্কার পুনর্জ্জন্ম দ্বারা নিদ্ধ হয় না।

তদ্ভিন্ন, যে মানুষ একবার এ পৃথিবীতে জ্ঞানাদিতে কিয়ৎ পরিমাণে বর্দ্ধিত হইল, দেহত্যাগের পর আবার তাহাকে অজ্ঞান শিশুরূপে জন্মগ্রহণ করিতে হইলে, উন্নতির পর তাহার আবার অবনতি হইল, ইহাই মানিতে হয়। ন্যায়বান ঈশ্বর এরূপ কখনও করেন না। সুতরাং পুনর্জ্জন্ম বিশ্বাসের অযোগ্য কল্পনা মাত্র।

তদ্ব্যতীত, ইহজন্মের সুখ-দু:খের হিসাব কে করিতে পারে? যাহার জন্ম ধনীর গৃহে, সেও ভয়ানক যন্ত্রণা ভোগ করিতেছে, আবার দরিদ্রের ঘরে জন্মিয়াও অনেকে পরম সুখে আছে। ইহজন্মের সুখ দু:খের হিসাব করাই যখন একান্ত অসম্ভব, তখন কোনও ব্যক্তি তাহার পূর্ব্বজন্মের কৃত পুণ্য বা পাপের ফল ইহজন্মে অমুকের ঘরে জন্মিয়াছে অথবা অমুক প্রকারে সুখ বা দু:খ ভোগ করিতেছে, এরূপ সিদ্ধান্ত করা আরও অসম্ভব।

এ জন্মে কোনও মানুষের কোনও বিশেষ অবস্থাটি কেন হইল, তাহার মীমাংসা কেহ করিতে পারে নাই, কখনও করিতে পারিবে না। তবে, বৃথা পূর্ব্বজন্ম কল্পনা করিয়া কি লাভ?

তদ্ভিন্ন, যে মানুষ একবার এ পৃথিবীতে জ্ঞানাদিতে কিয়ৎ পরিমাণে বর্দ্ধিত হইল, দেহত্যাগের পর আবার তাহাকে অজ্ঞান শিশুরূপে জন্মগ্রহণ করিতে হইলে, উন্নতির পর তাহার আবার অবনতি হইল, ইহাই মানিতে হয়। ন্যায়বান ঈশ্বর এরূপ কখনও করেন না। সুতরাং পুনর্জ্জন্ম বিশ্বাসের অযোগ্য কল্পনা মাত্র।

…………………………
ব্রাহ্মধর্ম্ম ও ব্রাহ্মসমাজ

……………………………….
ভাববাদ-আধ্যাত্মবাদ-সাধুগুরু নিয়ে লিখুন ভবঘুরেকথা.কম-এ
লেখা পাঠিয়ে দিন- voboghurekotha@gmail.com
……………………………….

………
আরও পড়ুন-
ব্রাহ্মসমাজ
সাধারণ ব্রাহ্মসমাজের সভ্য হইবার যোগ্যতা
ব্রাহ্ম ধর্মের মূল সত্য
ব্রহ্ম মন্দিরের ট্রাস্টডিড
ব্রাহ্মধর্ম্মের মূল সত্য
আত্মা
মানুষের ভ্রাতৃত্ব
উপাসনা ও প্রার্থনা
শাস্ত্র
গুরু
মধ্যবর্ত্তী ও প্রেরিত
সুখ-দু:খ : দু:খবাদ ও আনন্দবাদ
পাপ ও পুণ্য
পুনর্জ্জন্ম
পরকাল
স্বর্গ ও নরক
ধর্ম্ম রক্ষা
পরিবারে পুরুষ ও নারীর অধিকার-সাম্য
ব্রাহ্মসমাজের প্রতি ব্রাহ্মদিগের কর্ত্তব্য
সমবেত উপাসনা
পূর্ণাঙ্গ উপাসনার আদর্শ 
স্তুতি
বিবিধ অবস্থায় প্রার্থনা
নৈমিত্তিক অনুষ্ঠান
সন্তান জন্ম
ব্রাহ্মধর্ম্ম গ্রহণ ও ব্রাহ্মসমাজে প্রবেশ
ধর্ম্মসাধন ব্রতে দীক্ষা
ব্রাহ্মধর্ম্ম গ্রহণ ও ধর্ম্মদীক্ষা
বিবাহ ও তাহার আনুসঙ্গিক অনুষ্ঠান
বিবাহের বাগদান
বিবাহ
মৃত্যু ও অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া
শ্রাদ্ধ
গৃহ প্রবেশ
ব্রহ্ম ও ব্রহ্মের স্বরূপ
ব্রহ্ম ধ্যান
ব্রাহ্মধর্ম
সকলেই কি ব্রাহ্ম?
ব্রাহ্মোপসনা প্রচলন ও পদ্ধতি
আদি ব্রাহ্ম সমাজ ও “নব হিন্দু সম্প্রদায়”
পূর্ণাঙ্গ উপাসনার আদর্শ

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!